গাজীপুরসংসদ নির্বাচন ২০২৪

গাজীপুর-৫: লাখ থেকে কোটিপতি হয়েছেন মেহের আফরোজ চুমকি, বেড়েছে জমিও

নিজস্ব সংবাদদাতা : গাজীপুর-৫ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি গত ১৫ বছরে লাখ থেকে কোটিপতি হয়েছেন।

২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হলফনামায় নিজের নগদ কোন টাকা না থাকলেও ব্যাংকে ৯ লাখ ৬১ হাজার ৮১০ টাকা এবং তাঁর স্বামীর নগদ ৭৫ হাজার ২৭৯ টাকা এবং ব্যাংকে ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিনিয়োগ দেখিয়েছিলেন ২২ লাখ ৪৫ হাজার ৪২৮ টাকা।

২০২৩ সালে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হলফনামায় নিজের নগদ ৩৮ লাখ ৯১ হাজার ১৮০ টাকা এবং ব্যাংকে ৩ কোটি ৩৯ লাখ ৩৩ হাজার ১৩২ টাকা জমা দেখালেও তাঁর স্বামীর অর্থের কোন তথ্য উল্লেখ করেননি।

১৫ বছরের ব্যবধানে হলফনামায় মেহের আফরোজ চুমকি ও তাঁর স্বামীর সোনার গহনা, জমি, গাড়ি-বাড়ি ও অর্থ-সম্পদের এ তথ্য ওঠে এসেছে।

২০০৮ সালের নির্বাচনি হলফনামায় তাঁর বাৎসরিক আয় ছিল ৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা। হলফনামা অনুযায়ী, আয়ের উৎস হিসেবে বাড়ি ভাড়া উল্লেখ করেছিলেন তিনি।

তাঁর দাবি অনুযায়ী, বার্ষিক আয় এখন দাঁড়িয়েছে ২৯ লাখ ৭০ হাজার ৫৭৫ টাকা।

আগে গৃহীনি ছিলেন, এখন সংসদ সদস্য ও পরামর্শ দিয়ে আয় দেখানো হয়েছে ২৩ লাখ ২০ হাজার ৫৭৫ টাকা।

আগে বাড়ি ভাড়া থেকে আয় ছিল ৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা। বর্তমানে সেই আয় ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা হয়েছে।

২০০৮ সালের নির্বাচনি হলফনামায় নিজের বার্ষিক আয় ৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা ছিল। এবার সেই আয় ২৯ লাখ ৭০ হাজার ৫৭৫ টাকা বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

আগের বারের হলফনামায় ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ৯ লাখ ৬১ হাজার ৮১০ টাকা জমা থাকার কথা বলা হলেও এবার নিজের নামে ৩ কোটি ৩৯ লাখ ৩৩ হাজার ১৩২ টাকা দেখানো হয়েছে। তবে তাঁর স্বামীর অর্থের কোন তথ্য উল্লেখ করেননি।

আগের হলফনামায় তাঁর স্বামীর পোস্টাল সেভিংস ও সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ ছিলো ১২ লাখ টাকা এবং স্টক এক্সচেঞ্জ ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা দেখানো হলেও, এবার এ খাতে কোন টাকা দেখানো হয়নি।

এবার মেহের আফরোজ চুমকি’র নিজের ২০ হাজার টাকার গহনা থাকার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। যা গত ১৫ বছর আগেও বলা হয়েছিল। আগে তাঁর স্বামীর ১ লাখ ৭২ হাজার টাকার গহনা থাকলেও এবার কোন গহনা দেখানো হয়নি।

এদিকে, গত ১৫ বছরে কৃষি জমির পরিমাণ শূন্য থেকে বেড়ে মেহের আফরোজ চুমকি’র নিজের ৩ কোটি ৮৪ লাখ ৪০ হাজার টাকার দেখানো হয়েছে। ২০০৮ সালে কোন কৃষি জমি ছিলো না তাঁর।

বহু মূল্যমান আসবাবপত্র থাকলেও দেখানো হয়েছে মাত্র ৩০ হাজার টাকা। যা আগেও দেখানো হয়েছিল। ইলেকট্রনিক সামগ্রী দেখানো হয়েছে ২৫ হাজার টাকা। যা আগে তাঁর স্বামীর ছিলো ১ লাখ ৪৫ হাজার টাকার।

ছাড়াও মেহের আফরোজ চুমকি’র নিজের বাড়ি ও এপার্টমেন্টের মূল্য দেখানো হয়েছে ৩০ লাখ ৫১ হাজার টাকা। এই একই মূল ১৫ বছর আগেও ছিলো। তবে তাঁর স্বামীর বাড়ি বা এপার্টমেন্ট থাকার কোন তথ্য নেই।

এ ছাড়া ২০০৮ সালে তাঁর স্বামীর কৃষি জমির মূল্য ৫ লাখ ১১ হাজার ৭৫২ টাকার কথা হলফনামায় উল্লেখ করা হলেও ২০২৩ সালের হলফনামায় এর কিছুই নেই।

এ ছাড়া নির্বাচন কমিশনে দেওয়া হলফনামা বিশ্লেষণে দেখা যায়, এ সংসদ সদস্য প্রার্থীর ব্যক্তিগত কোন ঋণ নেই। নিজের বা তাঁর স্বামীর কোন গাড়ি রয়েছে কি না তাও হলফনামায় উল্লেখ করেনি। যদিও ২০০৮ সালে তাঁর স্বামীর গাড়ির দাম দেখানো হয়েছিল ৫ লাখ ৭০ হাজার টাকা।

মেহের আফরোজ চুমকি’র নামে কোন মামলা নেই বলে হলফনামায় উল্লেখ করা হয়েছে।

 

আরো জানতে……

গাজীপুর-৫: ব্যাংকে কোন টাকা নেই আখতারউজ্জামানের, স্ত্রীর আছে কোটি টাকা

কালীগঞ্জে একের পর এক উস্কানি ও হুমকি, এবার আরেক নেতাকে তলব

কালীগঞ্জে উস্কানিমূলক ও মানহানিকর বক্তব্য, আ.লীগের সাধারণ সম্পাদককে তলব

কালীগঞ্জে স্বতন্ত্র প্রার্থীকে হুমকি ও উস্কানি, মেম্বারকে তলব

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন: তিন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীসহ ১২ প্রার্থীকে শোকজ

কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আখতারুজ্জামান

নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মেহের আফরোজ চুমকি

গাজীপুর-৫ আসনে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছে ৮ প্রার্থী

স্বতন্ত্র প্রার্থী হচ্ছেন আখতারুজ্জামান, নৌকার প্রার্থী চুমকি

গাজীপুরে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যাঁরা

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button