গাজীপুর

পুলিশের উপস্থিতিতে মিলনের স্ত্রীর গণসংযোগে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের হামলা

গাজীপুর কণ্ঠ : গাজীপুর-৫ আসনে বিএনপির প্রার্থী কারাবন্দি ফজলুল হক মিলনের স্ত্রী শম্পা হকের গণসংযোগে পুলিশের উপস্থিতিতে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়ে গাড়ি ভাঙচুর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় চার নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

এ ঘটনার পর পুলিশ উল্টো যুবদল ও ছাত্রদলের দুই নেতাকে আটক করে নিয়ে যায়।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গাজীপুর মহানগরীর পূবাইলের মাজুখান বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

শম্পা হক জানান, তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্ত (ইউএনও) ও পূবাইল থানার ওসিকে অবহিত করে গাজীপুর মহানগরির হায়দরাবাদ থেকে শুক্রবার সকাল ১০টায় গণসংযোগ শুরু করেন। তিনি হায়দরাবাদ থেকে মাঝুখানে যাওয়ার পথে পুলিশ সদস্যরা রাস্তায় বেরিকেড দিয়ে তাদেরকে বাধা প্রদান করে। এসময় ৩০-৪০ জন ছাত্রলীগ ও যুবলীগ কর্মীরা লাঠি সোটা নিয়ে পুলিশের নেতৃত্বে তাদের ওপর হামলা চালায়। হামলায় তিনি অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেলেও তার সাথে থাকা মহিলাদল নেত্রী চামেলী ও ছাত্রদল নেতা সোহেল গুরুতর আহত হন। ঘটনার সময় পুলিশ হামলাকালীদের সরাসরি সহযোগিতা করে।

bartabahok

ওই সময় পুলিশের সাহায্য চেয়েও কোনো প্রকার সহায়তা পাওয়া যায়নি। উল্টো গাড়িতে থাকা যুবদল নেতা আওলাদ হোসেন ও ছাত্রদল নেতা মাসুম সরকারকে পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। স্বামী ফজলুল হক মিলন গ্রেফতারের পর তিনিও চরম নিরাপত্তহীনতায় ভুগছেন বলে অভিযোগ করেছেন।

পরে ঘটনাস্থল থেকে তিনি সরাসরি দুপুরে গাজীপুর জেলা প্রশাসক ও নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে গিয়ে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

এ বিষয়ে গাজীপুর জেলা প্রশাসক ও নির্বাচনের রির্টানিং অফিসার দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির জানান, অভিযোগটি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে তদন্ত করে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button