আলোচিত

প্রয়োজনীয় জনবল না থাকায় শুরুতে মেট্রোরেল চলতে পারে দিনে ২ ঘণ্টা

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : বাণিজ্যিকভাবে চলাচল শুরু হতে যাচ্ছে দেশের প্রথম মেট্রোরেলের। ডিসেম্বরের যেকোনো দিন উত্তরা-মতিঝিল-কমলাপুর (এমআরটি লাইন-৬) মেট্রোর উত্তরা-আগারগাঁও অংশের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে শুরুতে মেট্রোরেল চলবে সীমিত সময়। অর্থাৎ দিনে ২ ঘণ্টা। প্রয়োজনীয় জনবল ও অপ্রতুল প্রস্তুতির কারণে চালুর পর এক-দুই মাস বা তার কিছু বেশি সময় সীমিত পরিসরেই ট্রেন পরিচালনার সম্ভাবনা রয়েছে। সচিবালয়ে রোববার (১৩ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত মেট্রোরেল লাইন-৬ উদ্বোধন নিয়ে এক প্রস্তুতিমূলক সভায় এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। সভার একটি সূত্র জানিয়েছে, মেট্রোরেল উদ্বোধন হতে পারে ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ।

জানা গেছে, মেট্রোরেল চলাচলের সময়সূচি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। যদিও গত আগস্টে এক সংবাদ সম্মেলনে মেট্রোরেল নির্মাণ ও পরিচালনার দায়িত্বে থাকা ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএএন ছিদ্দিক জানিয়েছিলেন, ভোর থেকে শুরু হয়ে মধ্যরাত পর্যন্ত চলবে ট্রেন। প্রাথমিকভাবে ১০ সেট ট্রেন দিয়ে শুরু হবে যাত্রী পরিবহন। স্টেশনগুলোয় ট্রেন পাওয়া যাবে ১০ মিনিট পরপর।

বর্তমানে সে সিদ্ধান্তে কিছুটা পরিবর্তন এসেছে। পুরোদমে ট্রেন পরিচালনা করতে গেলে যাত্রীদের জন্য যে নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রয়োজন, তার কমতি রয়েছে বলে জানিয়েছে ডিএমটিসিএলের একটি সূত্র। তারা জানিয়েছে, উত্তরা-আগারগাঁও অংশে বাণিজ্যিকভাবে ট্রেন পরিচালনার জন্য অন্তত ৭০০ জনবল প্রয়োজন। অথচ এখনো সে পরিমাণ জনবল নিয়োগ হয়নি। প্রয়োজনীয় জনবল না থাকায় পুরোদমে বাণিজ্যিক চলাচল শুরু করা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে। পাশাপাশি বাণিজ্যিক চলাচলের জন্য এখনো প্রয়োজনীয় ‘ট্রায়াল রান’ করাও সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছে সূত্রটি। তাছাড়া পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে না ওঠায় পুরোদমে ট্রেন পরিচালনায় আপত্তি জানিয়েছে প্রকল্পে অর্থায়নকারী জাপান আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থাও (জাইকা)।

উদ্বোধন বিষয়ে রোববার প্রস্তুতিমূলক সভায় উপস্থিত ছিলেন এমন একজন কর্মকর্তা বলেন, মেট্রোরেল নিয়ে মানুষের মধ্যে অনেক আগ্রহ। এ কারণে চালুর পর মেট্রোয় ভ্রমণের জন্য প্রচুর জনসমাগম হতে পারে। অতিরিক্ত মানুষের চাপে বিশৃঙ্খলা দেখা দিতে পারে ট্রেন পরিচালনায়। তাই এমন প্রেক্ষাপটে শুরুর পর থেকে অন্তত এক মাস সীমিত সময়ের জন্য যাত্রী পরিবহনের চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে সুস্পষ্ট কোনো মন্তব্য করেননি ডিএমটিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সরকারের সাবেক সচিব এমএএন ছিদ্দিক। তিনি বলেন, মেট্রোরেল ব্যবস্থা প্রবর্তনের আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুসরণ করেই আমরা দেশের প্রথম মেট্রোরেল চালু করব। যদিও মেট্রোরেল প্রবর্তনের আন্তর্জাতিক নিয়মের কোনো ব্যাখ্যা তিনি দেননি। কেবল বলেন, ইন্দোনেশিয়া, ভারতসহ পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোয় যেভাবে প্রথম মেট্রোরেল চালু হয়েছে, আমরাও সেভাবে চালু করব। শুরুতে সীমিত সময়ের জন্য মেট্রোরেলের বাণিজ্যিক চলাচলের বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য করার মতো অবস্থা এখনো আসেনি। তাছাড়া মেট্রোরেল কবে উদ্বোধন হবে, কীভাবে পরিচালিত হবে এমন আনুষঙ্গিক বিষয় চূড়ান্ত করবেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে উদ্বোধনের অপেক্ষায় থাকা মেট্রোরেলের উত্তরা-আগারগাঁও অংশে স্টেশন রয়েছে নয়টি। এর মধ্যে তিনটি স্টেশনের কাজ এখনো শেষ হয়নি। ৩০ নভেম্বরের মধ্যে কাজীপাড়া, শেওড়াপাড়া ও মিরপুর-১০ নম্বর স্টেশনের কাজ সম্পন্ন করার লক্ষ্য রয়েছে। ডিসেম্বরে উদ্বোধন করতে হলে এ লক্ষ্যের মধ্যেই সবক’টি স্টেশনের কাজ শেষ করতে হবে। গত অক্টোবর পর্যন্ত মেট্রোরেলের উত্তরা-আগারগাঁও অংশের নির্মাণকাজের অগ্রগতি ৯৪ দশমিক ৫৭ শতাংশ।

মেট্রোরেলের আগারগাঁও পর্যন্ত আগামী ১৬ ডিসেম্বর উদ্বোধন হতে পারে এমন গুঞ্জন চলছে অনেকদিন ধরেই। তবে প্রস্তুতি সভায় উপস্থিত থাকা এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস, বিজয় দিবসের মতো অনুষ্ঠান রয়েছে। এরপর রয়েছে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন। এসব কর্মসূচি শেষ করে মাসের শেষ দিকে মেট্রোরেল উদ্বোধন হতে পারে। তবে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত প্রধানমন্ত্রীই নেবেন বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনিও।

উত্তরা-আগারগাঁও অংশ চালুর পর মেট্রোরেলের যাত্রীদের মতিঝিল পর্যন্ত যাতায়াতের জন্য রাখা হবে ‘শাটল’ বাস। একইভাবে শাটল বাস রাখা হবে উত্তরা নর্থ স্টেশনেও। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) সঙ্গে আগামী বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর করবে ডিএমটিসিএল। চুক্তি অনুযায়ী মেট্রোর যাত্রীদের আগারগাঁও স্টেশন থেকে ফার্মগেট, কারওয়ান বাজার, শাহবাগ, মতিঝিল পর্যন্ত পৌঁছে দিতে পর্যাপ্তসংখ্যক বাসের ব্যবস্থা করবে বিআরটিসি। এর পরও বাড়তি চাহিদা তৈরি হলে বেসরকারি কোম্পানির মাধ্যমে বাসের সংস্থান করা হবে।

 

সূত্র: বণিক বার্তা

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button