জাতীয়

প্রস্তুত থাকেন খেলা হবে: শামীম ওসমান

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান বলেছেন, বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের আমরা জায়গা দিয়েছি, আমাদের নেত্রী আল্লাহর রহমতে দেশের করোনা ও বন্যা পরিস্থিতি সামাল দিলো। কিন্তু এখন যে পরিস্থিতি, এই পরিস্থিতিতে শেখ হাসিনার কিছু করার নাই। সারা পৃথিবী রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের কারণে বিপাকে পড়ে গেছে। সারা পৃথিবীর মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত মানুষেরা অসহায় বোধ করছেন৷ বাংলাদেশ পৃথিবীর বাইরের কোন দেশ নয়। এই সুযোগকে কেউ কেউ মনে করছে, বাংলাদেশের অর্থনীতি ভঙ্গুর হবে। এই সুযোগে আঘাত করবে, আগুন দিয়ে মানুষ পুড়াবে। বিদেশ থেকে টাকা ঢুকেছে, সেই টাকা দিয়ে নাশকতা চালাবে। আমি গ্যারান্টি দিয়ে বলছি টাকা ঢুকেছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার (১৬ আগস্ট) বিকালে সিদ্ধিরগঞ্জের ৬নং ওয়ার্ডে থানা যুবলীগের সভাপতি মতিউর রহমান মতির আয়োজনের দোয়া মাহফিল ও গণভোজ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সোমবার দিনভর তিনি তার নির্বাচনী এলাকায় শতাধিক স্পটে দোয়া মাহফিল ও রান্না করা খাবার বিতরণ অনুষ্ঠান উদ্বোধন এবং পরিদর্শন করেন।

তিনি আরো বলেন, দেশের ক্ষতিতে সেসব রাজনীতিবিদ খুশি হয়, যারা আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে মারে।

আমি বলতে চাই, সামনে প্রচন্ড আঘাত আসবে। এটা ফাইনাল আঘাত করবে ওরা আমাদের ওপরে। নয়তো ৪২ বছরের রাজনীতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কখনো বলে নাই।

শামীম ওসমান বলেন, নারায়ণগঞ্জের মাটি থেকেই ঘোষণা দিবো, সিদ্ধিরগঞ্জের মিটিং এ বসে আলোচনা করবো। জনগণকে নিয়ে সকল কিছুর জবাব দেয়া হবে। সকল ষড়যন্ত্রের জবাব দেয়া হবে। যদি মনে করে, আবার আগুন দিয়ে মানুষ মারবেন। ষড়যন্ত্র করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টা করলে আমরা জাতির পিতার কন্যার কথাও শুনবো না। আন্দোলন করে সুষ্ঠু নির্বাচন করে ক্ষমতায় আসেন, সমস্যা নাই। কিন্তু যদি অন্য কিছু করে বাংলাদেশকে ধ্বংস করতে চান তাহলে প্রস্তুত থাকেন, খেলা হবে।

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে শামীম ওসমান বলেন, এখানে অবশ্যই বিপক্ষের কেউ না কেউ আছেন। কথায় কথায় শুনতাছি ঢাকায় বলতাছে, নারায়ণগঞ্জে অনেক নেতা-নেত্রী আছে, বড়-ছোট নেতা। আমি কর্মী ছিলাম, কর্মী আছি, কর্মী হিসেবেই মারা যাবো। তারা যখন বক্তব্য দেয়, আমার নেত্রীকে নিয়ে অশ্লীল ভাষায় কথা বলে। যেভাবে বলতাছে রাজপথ দখল করবে, শোকের মাস। ২২ তারিখে সিদ্ধিরগঞ্জে মিটিং ডেকেছি, কর্মীসভা। আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিবো।

ষড়যন্ত্রকারীদের উদ্দেশ্য করে শামীম ওসমান বলেন, ওদের উদ্দেশ্যে একটা কথা বলতে চাই। সারা বাংলাদেশ লাগবে না, আপনাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য। আপনারা খারাপ কথা বলে কি যে উপকার করেছেন, আল্লাহর রহমতে ৬১ বছরের বুড়ারে ১৬ বছরের যুবক বানায় দিছেন। ৬১ বছরের শামীম ওসমান এখন ১৬ বছরের যুবক। আপনারা খেলতে চান অবশ্যই আমরাও খেলবো। অশান্তির বিরুদ্ধে, শান্তির পক্ষে আমরা খেলব। অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে, শুভ শক্তির পক্ষে। ইবলিশের বিরুদ্ধে আল্লাহর পক্ষে এই খেলা হবে। এই খেলায় বাংলাদেশে আমরাই জিতবো ইনশাআল্লাহ।

শামীম ওসমান আগামীদিনগুলোতে দলীয় নেতাকর্মীদের সকল ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার অুনরোধ জানান। তিনি বলেন, আঘাত আসবে এই আঘাত আমরা মোকাবেলা করবো এবং আমরাই জয়ী হবো। এবং আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনাই দেশের প্রধানমন্ত্রী হবেন।

এমপি শামীম ওসমান বলেন, কি পদ পাইলাম, পাইলাম না তাতে শামীম ওসমানের কিছু আসে যায় না। না খেয়ে ছিলাম একসময়, বাড়িঘর নিলামে উঠে গেছিলো। এই হাইব্রিডদের আমার ভালো করে চেনা আছে, হাইব্রিডদের সঙ্গে আমার বনে না। শ্রমিকদের সহযোগিতায় আমাদের বাড়ি নিলাম থেকে রক্ষা করল। সবাই একত্রে থাকেন, ইনশাআল্লাহ আমরা নারায়ণগঞ্জে জনসভা দিবো। আরেকটা কথা, আমাদের হাইব্রিড দরকার নেই, আমাদের অরজিনাল যা আছে তাতেই যথেষ্ট। নতুন পার্টি পিছন দিকেই থাকেন, সামনের পার্টি সামনে থাকবে। ইমামের পিছনেই নামাজ পড়েন, ইমামের আগে নামাজ পড়তে যাইয়েন না।

সিটি করপোরেশনের ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের সভাপতি মতিউর রহমান মতির আয়োজনে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী ইয়াছিন মিয়া, শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সাজনু, নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হাসান নিপুসহ বিপুল সংখ্যক স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। প্রায় ৫ হাজার লোকের বিশাল এই আয়োজনে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের যারা শহীদ হয়েছেন তাদের মাগফেরাত কামনায় বিশেষ দোয়া করা হয়। দোয়া শেষে শামীম ওসমান গণভোজের উদ্বোধন করেন।

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button