খেলাধুলা

বেনজেমার জোড়া পেনাল্টি মিসের পরও রিয়ালের দাপুটে জয়

গাজীপুর কণ্ঠ, খেলাধুলা ডেস্ক : রিয়াল মাদ্রিদের সেরা তারকা করিম বেনজেমা। একের পর এক জয়সূচক পারফরম্যান্স, অনবদ্য হ্যাটট্রিকে লস ব্লাঙ্কোদের তুঙ্গে তুলে রেখেছেন তিনি। মৌসুম শেষে বর্ষসেরার দৌড়েও হয়তো দাপট দেখাবেন ফরাসি স্টার। তবে এবার বেনজেমার কারণে বিপদে পড়তে পারতো রিয়াল। ম্যাচে জোড়া পেনাল্টি মিস করে বসেন ফ্রেঞ্চম্যান। তাতেও অবশ্য থামেনি কার্লো আনচেলত্তির দলের জয়রথ। ওসাসুনার বিপক্ষে দাপুটে জয় তুলে লা লিগা শিরোপার আরো কাছে চলে যায় রিয়াল। বুধবার রাতে ওসাসুনার মাঠে ১-৩ গোলের জয় পায় মাদ্রিদের দলটি।

এই জয়ে ৩৩ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট হলো ৭৮।

এরই সঙ্গে শিরোপা লড়াই থেকে ছিটকে গেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ও সেভিয়া। রিয়ালের সঙ্গে শিরোপা দৌড়ে সম্ভাবনা এখনো টিকে আছে বার্সেলোনার। ব্লাউগ্রানাদের আগামী দুই ম্যাচে রিয়াল সোসিয়েদাদ এবং রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে খেলবে। সে দুই ম্যাচে বার্সা হারলে ৩৫তম লা লিগা শিরোপা উঠবে রিয়ালের শোকেজে। তাছাড়া বাকি ৫ রাউন্ডে ৪ পয়েন্ট পেলেই চ্যাম্পিয়ন হবে রিয়াল মাদ্রিদ।

৩৩ ম্যাচে ৬১ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রয়েছে অ্যাটলেতিকো মাদ্রিদ। ২ ম্যাচ কম খেলা বার্সেলোনা ৬০ পয়েন্ট নিয়ে আছে তিন নম্বরে। ৩২ ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল পার্থক্যে পিছিয়ে চারে সেভিয়া।

বুধবারের ম্যাচে বেনজেমার জোড়া পেনাল্টি মিস বাদে কোনো কমতি ছিল না রিয়ালের পারফরম্যান্সে। ৬৬ শতাংশ বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের গোলবারের উদ্দেশ্যে ২৩টি শট নেয় সফরকারীরা। যার মধ্যে লক্ষ্যে ছিল ১১টি। অপরদিকে ৩৪ শতাংশ বল দখলে রাখা ওসাসুনা ১২টি শটের ৩টি রাখে লক্ষ্যে।

দ্বাদশ মিনিটে এগিয়ে যায় রিয়াল। ফ্রি-কিক থেকে ডি-বক্সে বল পেয়ে গোলমুখে বাড়ান বেনজেমা। গোলরক্ষক সার্জিও এররেরা কোনোমতে ফিরিয়ে দেন আলাবার শট। ফিরতি বলে লক্ষ্যভেদ করেন এই অস্ট্রিয়ান ডিফেন্ডার।

লড়াইয়ে ফিরতে মোটেও সময় নেয়নি ওসাসুনা। এক মিনিটের ব্যবধানে সমতা টানে তারা। ডান দিক থেকে বল নিয়ে রিয়ালের ডি-বক্সে ঢুকে পড়ে এসেকিয়েল আভিলা খুঁজে নেন অরক্ষিত আন্তে বুদেমিরকে। গোললাইনের সামনে দাঁড়ানো ক্রোয়াট এই ফরোয়ার্ড আলতো টোকায় লক্ষ্যভেদ করেন। ৩২তম মিনিটে বুদেমিরই ফের বল জালে পাঠান। তবে অফসাইডের খড়গে মেলেনি গোল।

বিরতিতে যাওয়ার আগ মুহূর্তে রিয়ালকে এগিয়ে নেন অ্যাসেনসিও। এদুয়ার্দো কামাভিঙ্গার ক্রসে ভাসকেসের শট কোনোমতে ঠেকান এররেরা, ফিরতি বল খুব কাছ থেকে জালে পাঠান স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড।

৫২তম মিনিটে স্পট কিক থেকে ব্যবধান বাড়ানোর সহজ সুযোগ নষ্ট করেন বেনজেমা। ডান দিকে ঝাঁপিয়ে এই স্ট্রাইকারের শট ঠেকিয়ে দেন ওসাসুনা গোলরক্ষক। ডি-বক্সে আভিলার হ্যান্ডবলের জন্য পেনাল্টি পেয়েছিল সফরকারীরা।

৫৯তম মিনিটে রদ্রিগোকে ওসাসুনা ডিফেন্ডার নাচো ভিদাল ফাউল করায় আবার পেনাল্টি পায় রিয়াল। আবার ডান দিকে ঝাঁপিয়ে বেনজেমার স্পট কিক ঠেকিয়ে দেন এররেরা।

২০০৩-০৪ আসরের পর এই প্রথম রিয়ালের বিপক্ষে একই ম্যাচে দুটি পেনাল্টি ঠেকিয়ে দিলেন কোনো গোলরক্ষক।
যোগ করা সময়ের ষষ্ঠ মিনিটে স্কোরলাইন ৩-১ করেন ভিনিসিউস জুনিয়র।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button