আলোচিতসারাদেশ

ঢাকা কলেজে রাতভর সংঘর্ষ: ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : নিউ মার্কেটের দোকান কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের রাতভর সংঘর্ষের পর ঢাকা কলেজের সব ক্লাস ও পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) সকালে ঢাকা কলেজের ওয়েবসাইটে এই নোটিস দেওয়া হয়। কলেজের ফেসবুক পেইজেও বিষয়টি জানিয়ে দেয়া হয়।

কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বাক্ষরিত ওই নোটিসে বলা হয়, অনিবার্য কারণে ১৯শে এপ্রিল মঙ্গলবার ঢাকা কলেজের উচ্চমাধ্যমিক ও অনার্স-মাস্টার্স শ্রেণির সকল ক্লাস ও পরীক্ষাসমূহ স্থগিত করা হলো। সকল শিক্ষককে সকাল ১০টার মধ্যে কলেজে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করা হলো।

সোমবার মধ্যরাতে নিউ মার্কেটের দোকান কর্মচারীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ বাঁধলে পুলিশ সদস্যসহ বেশ কয়েকজন আহত হন। রাত ১২টার দিকে সংঘর্ষ শুরুর পর আড়াই ঘণ্টা ধরে দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া, পাল্টা ধাওয়া চলে। পরে পুলিশ টিয়ার শেল ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী-কর্মচারীরা বলেছেন, রাতে ঢাকা কলেজের কয়েকজন ছাত্র নিউমার্কেটের একটি ফাস্টফুডের দোকানে খাবার খেতে এসেছিলেন। খেয়ে তাঁরা টাকা দিয়ে চলে যেতে চাইলে দোকান কর্মচারীদের সাথে তাদের বাকবিতণ্ডা হয়।

যেটি এক পর্যায়ে হাতাহাতিতে রুপ নেয়। পরে তারা কলেজ গিয়ে দলবল নিয়ে আসে হামলার উদ্দেশ্যে।

তবে ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থীদের দাবি, বিনা কারণে তাদের দুই শিক্ষার্থীর উপর নিউমার্কেটের দোকান কর্মচারীরা হামলা চালায়। এর প্রতিবাদে তারা রাস্তায় নেমে এলে বাধে সংঘর্ষ। রাত সাড়ে ১১টায় শুরু হওয়া এ সংঘর্ষ দফায় দফায় চলে ভোররাত পর্যন্ত। সংঘর্ষের পুরোটা সময় নীলক্ষেত, ঢাকা কলেজ, সাইন্সল্যাব ও এর আশপাশের সড়কে যান চলাচল বন্ধ ছিল।

পুলিশ এসে মুখোমুখি অবস্থানে থাকা দুই পক্ষকে রাস্তা থেকে সরে যেতে বলে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ার শেল ছুড়ে। এ সময় ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ও ককটেল নিক্ষেপ করে। পরে পুলিশের সাঁজোয়া যান নিয়ে শিক্ষার্থীদের ধাওয়া দিলে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় তারা। পরে তাদের একটা অংশ ঢাকা কলেজের বিভিন্ন বহুতল ভবনের ছাদে জড়ো হয় পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকে। পুলিশকেও এ সময় তাদের কে লক্ষ্য করে রাবার বুলেট ছুড়তে দেখা যায়। মুহুর্মুহু রাবার বুলেট টিয়ারশেল ও ককটেলের শব্দে এ সময় পুরো নিউ মার্কেট এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

রাত দুটোর দিকে পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত হলে পিছিয়ে আসে পুলিশ। এ সময় শিক্ষার্থীরা একত্রিত হয়ে রড লাঠি হাতে ফের রাস্তায় নেমে আসে। রাস্তায় জড়ো হয়ে তারা ‘প্রশাসনের কালো হাত ভেঙ্গে দাও গুড়িয়ে দাও, ‘শিক্ষার্থীদের উপর হামলা কেন, প্রশাসন জবাব চাই সহ নানা ধরণের স্লোগান দিতে থাকে। এ সময় তারা পুলিশের বিরুদ্ধে তাদের উপর গুলি চালানোর অভিযোগ করে বলেন, পুলিশের হামলায় বেশ কয়েক জন গুরুতর আহত হয়েছেন বলে তারা জানায়। ঢাকা কলেজের একাধিক শিক্ষার্থী আরো অভিযোগ করেন, ব্যবসায়ীদের সাথে যোগসাজশে পুলিশ তাদের ওপর হামলা করেছে। ঢাকা কলেজের ইতিহাস বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মাহবুব গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, পুলিশের হামলায় ঢাকা কলেজের তিন শিক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ হয়েছে। এদের মধ্যে একজন আইসিইউতে আছেন। আরও কয়েকজন গুরুতর আহত হয়েছেন। আমরা এটির প্রতিকার চাই। বড় ভাইরা নির্দেশ দিয়েছেন, এ ঘটনার শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত কাল থেকে আমরা নিউমার্কেট খুলতে দেবো না।

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button