খেলাধুলা

রোনালদো ইতিহাস গড়লেন

গাজীপুর কণ্ঠ, খেলাধুলা ডেস্ক : ম্যাচের শুরুতেই গোল হজম করে বসা জুভেন্টাস অ্যালেক্স সান্দ্রোর গোলে সমতায় ফেরে। এরপর পেজ্জেলার আত্মঘাতীতে টানা অষ্টমবারের মতো সিরি’আ ঘরে তুলল জুভরা।

তুরিনে নিজেদের মাঠে শুরুতেই হোঁচট খেয়েও ঘুরে দাঁড়ান রোনালদোরা। এ জয়ে রোনালদো নাম লেখালেন ইতিহাসের পাতায়। একমাত্র খেলোয়াড়, যিনি ইউরোপের সেরা তিন লিগের শিরোপায় চুমু খেয়েছেন। প্রিমিয়ার লিগ, লা লিগার পর জিতলেন সিরি আ। চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করেন জুভেন্টাসের পর্তুগিজ সেনা। ম্যাচ শেষে বললেনও তাই, ‘আমি চ্যালেঞ্জ নিতে ভালোবাসি এবং মনে করি, জীবনটাই একটা চ্যালেঞ্জ।’

চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে আয়াক্স রূপকথার কাছে হার মেনে জুভেন্টাস–সমর্থকদের হৃদয়ে কান্নার সুর শেষ হওয়ার আগেই লিগ শিরোপার লড়াইয়ে নেমে পড়েন আলেগ্রির শিষ্যরা। চ্যাম্পিয়নস লিগে হারের যন্ত্রণ হয়তো এই ম্যাচে তাড়া করছিল তাঁদের। সে কারণেই কিনা ম্যাচের শুরুতেই গোল হজম করে বসে স্বাগতিকেরা! এ তথ্যের সত্যতা পাওয়া না গেলেও অতিথিরা কিন্তু ষষ্ঠ মিনিটে রোনালদোদের বুকে কাঁপুনি তুলে দিয়েছিল। জুভেন্টাসের গোলরক্ষক প্রথম চেষ্টায় বল ক্লিয়ার করতে না পারার খেসারত দিলেন শেষতক। মিলেনকোভিচের জোরালো শটে বল তার আপন ঠিকানা খুঁজে পায়।

এরপর বলের দখল নিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর আপ্রাণ চেষ্টা করা জুভেন্টাস ৩৭তম মিনিটে এসে স্বস্তির নিশ্বাস ফেলে। অ্যালেক্স সান্দ্রোর গোলে সমতায় ফিরলেও তখনো জয় নিশ্চিত হয়নি তাদের। কর্নার কিক থেকে উড়ে আসা বলে মাথা ছোঁয়ার জুভেন্টাসের ব্রাজিলিয়ান এই ডিফেন্ডার। তুরিনের সমর্থকেরা তখন আশায় বুক বাঁধেন। রোনালদো চমকে একটা গোল তো তাঁরা পাবেনই! রোনালদো চমক দেখালেন দ্বিতীয়ার্ধে। ৫৩তম মিনিটে তাঁর শট পেজ্জেলার পায়ে লেগে জালে জড়ায়।

ব্যবধান বাড়ার পর ফিওরিন্টিনাকে আরও চেপে ধরে ইতালির শীর্ষ লিগে এ নিয়ে ৩৫টি শিরোপা জেতা জুভেন্টাস। শেষ দিকে এসে পর্তুগিজ সেনার বেশ কটি শট আটকে দেন অতিথিদের গোলরক্ষক। আত্মঘাতী গোলের পর গোলের দেখা পায়নি কোনো দলই।

পাঁচ ম্যাচ হাতে রেখেই শিরোপা নিজেদের করে নিল ইতালিয়ান জায়ান্টরা।

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button