গাজীপুর

কালীগঞ্জে ‘অনুমতি ছাড়া নিউজ’ করলে খুব খারাপ হবে, সাংবাদিককে আ. লীগ নেতার হুমকি!

বিশেষ প্রতিনিধি, কালীগঞ্জ : কালীগঞ্জ ও বোয়ালী গ্রামের কোন নিউজ প্রকাশ করতে হলে আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল গনি ভূঁইয়ার (৫৮) অনুমতি নিতে হবে। তার অনুমতি ছাড়া নিউজ করলে খুব খারাপ হবে। এমন হুশিয়ারী দিয়ে স্থানীয় এক সাংবাদিককে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে আব্দুল গনি ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় কালীগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেছে হুমকির শিকার সাংবাদিক আব্দুর রহমান আরমান।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলা চত্বরে এ ঘটনা ঘটে।

পরে এ ঘটনায় সোমবার দিবাগত রাতেই থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করা হয়েছে (জিডি নাম্বার ৭২৮)। 

হুমকি প্রদানকারী আ’লীগ নেতা আব্দুল গনি ভূঁইয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য। তিনি উপজেলার তুমলিয়া ইউনিয়নের বোয়ালী গ্রামের মৃত হেকিম উদ্দিন ভূঁইয়ার ছেলে।

অন্যদিকে, হুমকি শিকার গণমাধ্যম কর্মী আব্দুর রহমান আরমান কালীগঞ্জ উপজেলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এবং দৈনিক ইত্তেফাক ও জাগো নিউজের স্থানীয় প্রতিনিধি। এছাড়াও তিনি উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ মসলিন কটন মিলস উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক। আব্দুর রহমান আরমান কালীগঞ্জ পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড খঞ্জনা গ্রামের মৃত মহর আলীর ছেলে।

জানা গেছে, গত বছরের সেপ্টেম্বরে বোয়ালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শতবর্ষী দুইটি জাম গাছ অবৈধভাবে কেটে বিক্রি করে দেন ওই আ.লীগ নেতা আব্দুল গনি ভূঁইয়া। এ নিয়ে একটি অভিযোগের ভিত্তিতে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরা সংবাদ প্রকাশ করেন। পরে সেই সংবাদের ভিত্তিতে দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয় এবং ওই দুই কমিটির তদেন্ত তিনি অভিযুক্ত প্রমানিত হন। আর তাতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে দীর্ঘ ৪ মাস পর ওই গণমাধ্যম কর্মী চড়াও হন।

সাংবাদিক ও শিক্ষক আব্দুর রহমান আরমান বলেন, বাংলাদেশ স্কাউট কালীগঞ্জ উপজেলা শাখার নব গঠিত কমিটি নিয়ে ওইদিন দুপুরে আমিসহ স্কাউটের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপজেলা প্রশাসনের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে যাই। এ সময় আ. লীগ নেতা আব্দুল গণি ভূঁইয়া আমাকে দেখে ওই স্কাউট নেতৃবৃন্দের সামনে চড়াও হন এবং অকথ্য-অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করেন। পাশাপাশি তিনি তার এলাকা বোয়ালী গ্রাম ও কালীগঞ্জের কোন নিউজ করতে হলে তার অনুমতি নিতে হবে বলেও হুশিয়ারী দেন। অনুমতি ছাড়া নিউজ করলে খুব খারাপ হবে বলেও তিনি হুমকি দেন। এ ঘটনায় রাতেই তিনি বাদী হয়ে নিজের এবং প্রেস ক্লাবের অন্যান্য সহকর্মীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে কালীগঞ্জ থানায় একটি জিডি করেছেন বলেও জানান তিনি।

এ ব্যাপারে আ. লীগ নেতা আব্দুল গণি ভূঁইয়া বলেন, এ ধরণের কোন ঘটনা ঘটে নাই এবং আমি তাকে এই ধরণের কোন কথাও বলিনি। তবে বোয়ালী স্কুলের গাছ কাটার নিউজ করার কারণ জানতে চেয়েছিলাম এবং ওই এলাকায় কোন ঘটনা ঘটলে ঘটনাস্থলে গিয়ে সংবাদ করতে বলেছি।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আনিসুর রহমান জানান, গণমাধ্যম কর্মীকে হুমকির ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী হয়েছে। বিষয়টির ব্যাপারে আইনগত যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্থানীয় সাংসদ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, অনিয়মের কোন সংবাদ প্রচার-প্রকাশ করতে কারো অনুমতি লাগেনা। গণমাধ্যম কর্মীরা স্বাধীনভাবে কাজ করার সুযোগ আছে। সেটা বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই স্বাধীন করেছেন। তবে এই ব্যাপারে ওই নেতার বিষয়টি দেখবেন বলেও জানান তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button