আন্তর্জাতিকআলোচিত

৭০ বছরে ফ্রান্সের বিভিন্ন গির্জায় তিন হাজারের বেশি শিশুর ওপর যৌন নির্যাতন!

গাজীপুর কণ্ঠ, আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সাম্প্রতিক বছরগুলোতে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের ক্যাথলিক গির্জার পাদ্রীদের বিরুদ্ধে শিশুদের ওপর যৌন নির্যাতন কেলেঙ্কারির ঘটনায় ভ্যাটিকানের বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনার ঝড় শুরু হয়েছে।

বিশেষ করে সম্প্রতি ফ্রান্সে অসংখ্য শিশুর ওপর গির্জার পাদ্রীদের যৌন নির্যাতনের ঘটনা ফাঁস হয়ে পড়ায় ওই দেশটির সামাজিক ও নৈতিক অধঃপতনের বিষয়ে বিপদঘন্টা বেজে উঠেছে। ফ্রান্সে এক গবেষণায় দেখা গেছে সেদেশের ৫০০ বছরের পুরানো সবচেয়ে বড় ক্যাথলিক গির্জার পাদ্রীরা হাজার হাজার শিশুর ওপর যৌন নির্যাতন চালিয়েছে।

ফ্রান্সের স্বাধীন তদন্ত কমিশনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে গত ৭০ বছরে ফ্রান্সের বিভিন্ন গির্জায় তিন হাজারের বেশি শিশুর ওপর পাদ্রীরা যৌন নির্যাতন চালিয়েছে। দেশটির পাদ্রীদের এক সম্মেলনে এ সংক্রান্ত পূর্ণ প্রতিবেদন তুলে ধরা হবে বলে তদন্ত কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

পাশ্চাত্যের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে শিশুদের ওপর যৌন নির্যাতনের ঘটনা ফাঁস হয়ে পড়ায় বিশ্বজুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। বহু বছর ধরে এ ধরনের অভিযোগ শোনা গেলেও সাম্প্রতিক বছরগুলো এ নির্যাতনের ঘটনা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে এবং পাশ্চাত্য সমাজের জন্য বিরাট সামাজিক ও নৈতিক সঙ্কটে পরিণত হয়েছে। কানাডায় অশেতাঙ্গ শিশুদের ওপর গির্জার পাদ্রীদের যৌন নির্যাতনের ঘটনা প্রকাশ এবং কিছুদিন আগে শিশুদের একাধিক গণকবরের সন্ধান ওই দেশটির ক্যাথলিক খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের জন্য বিরাট কেলেঙ্কারি হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং বিশ্বব্যাপী হৈ চৈ ফেলে দিয়েছিল।

ফ্রান্সের সাংবাদিক ও লেখক ক্রিস্টোফার ল্যাম্ব বলেছেন, ফ্রান্সের ৫০০ বছরের পুরানো সবচেয়ে বড় গির্জায় শিশুদের ওপর যৌন কেলেঙ্কারির ঘটনা এমন সময় ফাঁস হল যখন চলতি বছরের প্রথম দিকে বিশ্বের ক্যাথলিক গির্জার প্রধান পোপ ফ্রান্সিস গির্জার নিয়ম-কানুনে কিছু পরিবর্তন আনেন যাতে যৌন নির্যাতনের ঘটনাকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা যায়। গত কয়েক দশকে গির্জার নিয়মে পরিবর্তন আনার জন্য ভ্যাটিকানের এ সংস্কার কর্মসূচি ছিল নজিরবিহীন।

যাইহোক, ফ্রান্সের গির্জায় শিশুদের ওপর যৌন নির্যাতনের ঘটনা এমন সময় ভয়াবহ বিস্তার লাভ করেছে এবং এ নিয়ে বিশ্বব্যাপী হৈ চৈ শুরু হয়েছে যখন ফ্রান্সসহ পাশ্চাত্যের সরকারগুলো গির্জাগুলোতে এ ধরনের অপরাধের দায় নিজেদের কাঁধে না রেখে এর জন্য গির্জার পাদ্রী ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের ওপর চাপানোর চেষ্টা করছে। অথচ সরকারের নজরদারি সংস্থা ও নিরাপত্তা বিভাগের দুর্বলতার কারণেই মূলত এই সঙ্কটের জন্ম হয়েছে।

এদিকে, পাশ্চাত্যের দেশগুলোতে শুধু যে গির্জায় শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে তাই নয় একইসাথে বিভিন্ন শিক্ষা ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানগুলোতেও এ ধরনের অপরাধ অহরহ ঘটছে। সম্প্রতি দক্ষিণ লন্ডনের লাম্বাত এলাকার স্থানীয় পরিষদের তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে গত ৬০ দশক থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত অন্তত পাঁচটি শিশু প্রতিপালন কেন্দ্রের শত শত শিশুর ওপর যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button