গাজীপুর

কালীগঞ্জে পুলিশের উপর জুয়াড়ির হামলা: স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাসহ আটক ৩ 

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : কালীগঞ্জে জুয়ার আসরে অভিযানে গেলে পুলিশ সদস্যর হাতে কামড় দিয়ে পালিয়েছে এক জুয়াড়ি। সে সময় ঘটনাস্থল থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগের এক নেতাসহ ৩ জুয়াড়িকে আটক করেছে পুলিশ। 

সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে পৌরসভার বড়নগর এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করে পুলিশ।

আটক জুয়াড়িরা হলো, পৌরসভার খঞ্জনা গ্রামের বারেক খানের ছেলে ৬নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সুরুজ খান (৪৮), ফারুক শেখের ছেলে মো. মনিব (২৬) এবং মুনশুরপুর গ্রামের মৃত রাহিম উদ্দিনের ছেলে আলাউদ্দিন (৪৫)।

এছাড়া পুলিশের হাতে কামড় দিয়ে পালিয়েছে ভাদগাতী গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে জুয়াড়ি আনোয়ার হোসেন (৪৫)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কালীগঞ্জ পৌরসভার বড়নগর এলাকায় সাফির মুদি দোকানের পাশে নির্মিত একটি ঘরে নিয়মিত জুয়ার আসর বসে। সোমবার বিকেল ওই জুয়ার আসরে অভিযান চালিয়ে চার জুয়াড়িকে আটক করে কালীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মশিউর রহমান ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সোহেল রানা। ওই সময় এএসআই সোহেল রানার সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয় জুয়াড়ি আনোয়ারের। একপর্যায়ে এএসআই সোহেল রানার ডান হাতের কনুইয়ে কামড় দিয়ে পালিয়ে যায় আনোয়ার।

সত্যতা নিশ্চিত করে কালীগঞ্জ থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সোহেল রানা বলেন, ”জুয়ার আসরে থেকে আসামি আটক করতে গেলে জুয়াড়ি আনোয়ারের সঙ্গে আমার ধস্তাধস্তি হয়। একপর্যায়ে আমার ডান হাতের কনুইয়ে কামড় দিয়ে পালিয়ে যায় আনোয়ার। ঘটনাস্থল থেকে তিন জুয়াড়িকে আটক করা হয়েছে। জুয়াড়িদের খুচরো টাকা ও জুয়া খেলার সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে। আমি প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছি। বর্তমানে সুস্থ আছি।”

কালীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মশিউর রহমান বলেন, ”জুয়ার আসর থেকে তিন জুয়াড়িকে আটক করা হয়েছে। এএসআই’র হাতে কামড় দিয়ে পালিয়েছে এক জুয়াড়ি। তাকে আটক করতে অভিযান চলছে।”

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button