গাজীপুর

গাজীপুরে জুনের ত্রিশ দিনে ২৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২ হাজার ৫৩৮ জন

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : গাজীপুরে জুনের ত্রিশ দিনে মোট ৮ হাজার ৩১৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়ে মারা গেছে ২৭ জন। আর করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৩৯৮ জনের।

১ জুন থেকে ১ জুলাই পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যের পরিসংখ্যান এটি।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) পর্যন্ত গাজীপুর সিভিল সার্জন অফিস থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী এসব তথ্য জানা গেছে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ২ জন। এ নিয়ে করোনায় গাজীপুরে মোট মারা গেলেন ২৪২ জন। আর ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ৭৩ জন।

সিভিল সার্জন অফিস জানায়, ”গত ২৪ ঘণ্টায় (বুধবার সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) নমুনা পাঠানো হয়েছে ৩৮৮ জনের। এরমধ্যে নমুনা পরীক্ষার পর ফলাফল পাওয়া গেছে ২৯৪ জনের। এর মধ্যে ৭৩ জনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। বাকী ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফল অপেক্ষমান রয়েছে। এ সময়ে মৃত্যু হয়েছে আরও ২ জনের।”

সিভিল সার্জন অফিস থেকে প্রাপ্ত তথ্যের পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, ”এ পর্যন্ত গাজীপুরের মোট ৯০ হাজার ৯১১ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এরমধ্যে করোনার সংক্রমণ শনাক্তের সংখ্যা ১২ হাজার ৬৮৬ জন। তাঁদের মধ্যে মারা গেছেন মোট ২৪২ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ৯৮৯ জন। ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা ও ফলাফল অপেক্ষমান রয়েছে।”

আরো জানা যায়, ”এখন পর্যন্ত সর্বাধিক কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে সদরে (মহানগর) ৮ হাজার ২৫৩ জন। এছাড়াও শ্রীপুরে ১ হাজার ৪০৬ জন, কালিয়াকৈরে ১ হাজার ৩১৮ জন, কালীগঞ্জে ৮৯৩ জন এবং কাপাসিয়ায় ৮১৬ জন।”

”আর ১ জুন থেকে ১ জুলাই পর্যন্ত গাজীপুরের মোট ৮ হাজার ৩১৭ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। ১ জুন মোট শনাক্তের সংখ্যা ছিলো ১১ হাজার ২৮৮ জন। ১ জুলাই শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৬৮৬ জন। ১ জুন মোট মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ২১৫ জন। যা ১ জুলাই পর্যন্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪২ জন।”

”সে হিসেবে এপ্রিলের এই ত্রিশ দিনে মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৩৯৮ জন। আর এ সময়ে মারা গেছেন মোট ২৭ জন।”

”১ জুন থেকে ১ জুলাই পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৯৮২ জন।”

সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, ”২৪ ঘণ্টার হিসাবে ১ জুন কারো মৃত্যু হয়নি, প্রথম মৃত হয় ২ জুন ১ জন, ৩ জুন ১ জন, ৮ জুন ২ জন, ৯ জুন ১ জন, ১০ জুন ৩ জন, ১১ জুন ১ জন, ১৩ জুন ১ জন, ১৪ জুন ১ জন, ১৮ জুন ১ জন, ২২ জুন ১ জন, ২৪ জুন ২ জন, ২৫ জুন ২ জন, ২৬ জুন ২ জন, ২৭ জুন ২ জন, ২৯ জুন ৪ জন এবং ৩০ জুন ২ জন।”

”১ এপ্রিল থেকে ১ মে পর্যন্ত পর্যন্ত সর্বাধিক কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে সদরে (মহানগর) ৮৪৮ জন। এছাড়াও শ্রীপুরে ২৩১ জন, কালিয়াকৈরে ১৫৯ জন, কাপাসিয়ায় ১০৩ জন এবং কালীগঞ্জে ৫৭ জন।”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button