আইন-আদালত

ডাকসু নির্বাচন স্থগিত করেননি হাইকোর্ট

বার্তাবাহক ডেস্ক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন স্থগিত চাওয়া রিটের শুনানি নিয়ে এ বিষয়ে কোনও আদেশ দেননি হাইকোর্ট। ফলে ডাকসু নির্বাচন হতে এখনও পর্যন্ত আইনি কোনও বাধা নেই। তবে আদালতের আদেশ পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ভোটার তালিকায় রিটকারী ছাত্রদল নেত্রী ফাহমিদা মজিদের নাম অন্তর্ভুক্তি ও প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে করা আবেদন নিষ্পত্তি করতে ডাকসু নির্বাচনের চিফ রিটার্নিং অফিসারকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

একইসঙ্গে ভোটার তালিকায় ফাহমিদা মজিদের নাম অন্তর্ভুক্ত না করার বিষয়টি কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে সোমবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটকারীর পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টা রুহুল কুদ্দুস কাজল। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে অংশ নেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এর আগে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ভোটার তালিকায় নাম না থাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ছাত্রী ও কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক ফাহমিদা মজিদ। ফাহমিদা মজিদের পক্ষে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

পরে আইনজীবী রুহুল কুদ্দুস কাজল সাংবাদিকদের বলেন, ‘ভোটার তালিকায় রিটকারীর নাম না থাকায় হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। রিটে নির্বাচনের তফসিল স্থগিত চাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি রিটকারী শিক্ষার্থীর নাম ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত না করে তফসিল ঘোষণা করা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, সেই বিষয়ে রুল জারির আরজি জানানো হয়।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ১১ ফেব্রুয়ারি ডাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা অধ্যাপক এস এম মাহফুজুর রহমান। তফসিল অনুযায়ী আজ সোমবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত ডাকসু নির্বাচনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা যাবে। পাশাপাশি ২৬ ফেব্রুয়ারি মনোনয়ন ফরম জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ও মনোনয়ন বাছাইয়ের দিন নির্ধারণ রয়েছে। এছাড়া, আগামী ১১ মার্চ সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণের জন্য সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button