একসঙ্গে হলেই ‘অশ্লীল’ আলাপ, পাঁচ টিয়া কোয়ারেন্টাইনে!

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : একসঙ্গে হলেই অশ্লীল ও নোংরা ভাষার কথা বলা শুরু করতো পাঁচটি টিয়া। যে কারণে তাদের আলাদা আলাদা করে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে আফ্রিকান ওই টিয়াগুলোকে। ইংল্যান্ডের লিঙ্কনশায়ার ওয়াইল্ডলাইফ পার্কে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো।

জানা গেছে, আপাতত এই পাঁচটি আফ্রিকান টিয়াকে আর চিড়িয়াখানায় আসা দর্শকদের সামনে রাখা হচ্ছে না। ‘কুকথা’ ভুলে ‘ভদ্র-সভ্য’ হলেই ফের এদের জনসম্মুখে আনা হবে। এর আগ পর্যন্ত পৃথক পাঁচ স্থানে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে এই টিয়াগুলোকে।

এরিক, জেড, এলসি, টাইসন ও বিল্লি নামের এই পাঁচটি টিয়া পাখিকে একসঙ্গে হলেই বাজে ভাষায় কথা বলতে লক্ষ্য করেন ওয়াইল্ডলাইফ পার্কটির কর্মকর্তারা। এরপরই এদের আলাদা রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

চিড়িয়াখানার কর্তা স্টিভ নিকোলাস সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘শিশুদের সামনে ওদের কথাবার্তা নিয়ে আমরা চিন্তিত হয়ে পড়েছিলাম।’

তবে এরা ঠিক কী ধরনের ‘অশ্লীল-কুকথা’ বলতো সে বিষয়ে কিছুই জানানো হয়নি। কোয়ারেন্টাইনে ‘সুশিক্ষা’ শেষ হলেই ফের চিড়িয়াখানায় আনা হবে আফ্রিকান এই পাঁচটি টিয়াকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.