আলোচিতসারাদেশ

‘নৌকার বিরুদ্ধে স্ট্যাটাস দিলে ডাইরেক্ট ক্রসফায়ার করিয়াম’

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুল হাসান রনির কর্মী রিয়াজ উদ্দিন মিজিকে ক্রসফায়ারে হত্যার হুমকির অভিযোগ উঠেছে। ভবানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল খালেক বাদলের ভাতিজা আবদুল্লাহ আল মামুন রাব্বি মোবাইল ফোনে এ হুমকি দিয়েছে বলে জানা গেছে।

শুক্রবার রাত ৮টার দিকে রিয়াজের মোবাইল ফোনে রাব্বি কল দেয়। প্রতিটি কথার আগে ও পরে খারাপ ভাষায় রিয়াজকে গালামন্দ করে সে।

১ মিনিট ১৩ সেকেন্ডের কলে রিয়াজকে হুমকি দিয়ে রাব্বি বলে— ‘এই মিজি নিরে। মিজি, যদি আর একটা স্ট্যাটাস দেস নৌকার বিরুদ্ধে, তাহলে তোরে বাড়িত তন ধরি আনি ক্রসফায়ার করিয়াম। নৌকার বিরুদ্ধে কোনো স্ট্যাটাস দিলে ডাইরেক্ট আঁকি হালাইয়াম তুই যিয়ানেই থাস। তুই বাড়িত নি হেডা ক। তুই নৌকার বিরুদ্ধে স্ট্যাটাস দিবি তো, তুই মহানগর যুবলীগ করস তো, যুবলীগের নাম বেচস কেন? তুই বিএনপির লগে লিয়াজু করে আওয়ামী লীগের পেস্টুন ভাঙস, এগিন মাইনসে জানে না। বিএনপির লগে লিয়াজু করে যুবলীগের নাম বেচস। মারি হালাইয়াম, ডাইরেক্ট মারি হালাইয়াম।’

রিয়াজ উদ্দিন মিয়াজি বলেন, কল পেয়ে আমি রাব্বিকে সালাম দিয়েছি। কিন্তু রাব্বি শুরু থেকেই আমাকে ধমক দিয়ে কথা বলে। প্রতিটি বাক্যে সে আমাকে খারাপ ভাষায় গালাগাল করে। আমাকে ক্রসফায়ার দেবে, মেরে ফেলবে বলে হুমকি দিয়েছে। নিজের জীবনের নিরাপত্তায় আমি তার বিরুদ্ধে মামলা করব। আমি নৌকার বিরুদ্ধেও কোনো স্ট্যাটাস দিইনি।

অভিযোগ অস্বীকার করে আবদুল্লাহ আল মামুন রাব্বি জানায়, হুমকি তো দূরের কথা আমি কাউকে কলই দেই নাই। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে। ওই কল রেকর্ডিং আমার না। আমার মোবাইল থেকে অন্য কেউও রিয়াজকে কল দেয়নি। রিয়াজ মামলা করুক, সমস্যা নেই।

বক্তব্য জানতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবদুল খালেক বাদলকে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভি করেননি।

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ওসি জসিম উদ্দিন বলেন, ঘটনাটি কেউ আমাকে জানায়নি। এখনো কেউ অভিযোগও করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, চতুর্থ ধাপে ২৬ ডিসেম্বর ভবনীগঞ্জসহ সদর উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নে নির্বাচন হবে। এ ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান রনি ও আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছাড়া আরও ৭ জন প্রার্থী রয়েছেন। ৭ ডিসেম্বর প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে।

 

সূত্র: যুগান্তর

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close