রাশিফল

কেমন যাবে এই সপ্তাহ, দেখে নিন সাপ্তাহিক রাশিফল

গাজীপুর কণ্ঠ, রাশিফল ডেস্ক : মেষ ২১ মার্চ-২০ এপ্রিল। ভর # ৬

এ দেশের পাড়ায় পাড়ায় আপনি গড়ে ছয়জন করে ‘বাবু’ পাবেন। এ কী রে বাবা! এত বাবু আসেন কোথা থেকে? বাচ্চার জন্ম হলেই তাকে বাবু নামে ডাকা হয়। এই বাবু কালচার থেকে বেরিয়ে আসুন। বাচ্চাকে সুন্দর একটি নাম দিন। তা না হলে সে সারা জীবন বাবু হিসেবেই থেকে যাবে। যাদের ডাকনাম বাবু, তারা আমার কথা শুনে মাইন্ড ব্যাড করলেন না তো?

বৃষ ২১ এপ্রিল-২১ মে। ভর # ১

ধরুন, রবীন্দ্রনাথের একটি লেখা আপনি পড়লেন, বুঝলেন এবং উপভোগ করলেন। এখানেই আপনার মেধার মান বোঝা যায়। রবীন্দ্রনাথের লেখাটা তখনই সার্থক হয়ে গেল। আপনি না বুঝলে তা কেমন করে হতো? একেই বলা হয় সমঝদারি। বৃষের চলতি সপ্তাহ শুভ। তিনি তাঁর চিন্তার সঙ্গী খুঁজে পাবেন।

মিথুন ২২ মে-২১ জুন। ভর # ৬

কোলকাতার মোহিনী চৌধুরী ছিলেন এক মহান গীতিকার। বহু কালজয়ী গানের লেখক। স্বাধীনতার সময় মোহিনী চৌধুরী একটি গান লিখে দিয়েছিলেন আমাদের লাকী আখান্দ্‌কে। অসাধারণ লেখা ও সুর…শুধু সারি সারি মলিন মুখ দেখে আমি ক্লান্ত। আমার শত অনুরোধ সত্ত্বেও কেন যে লাকী আখান্দ্‌ এই গানটি রেকর্ড করলেন না…সে আমার দীর্ঘ ৫০ বছরের একটি অমীমাংসিত প্রশ্ন। প্রিয় মিথুন, আপনার খামখেয়ালিপনা বাদ দিয়ে সরল রাস্তায় আসুন।

কর্কট ২২ জুন-২২ জুলাই। ভর # ২

কূটনীতিক ও লেখক ফারুক চৌধুরী অবসরে যাওয়ার আগে তখনকার ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরসিমা রাওয়ের কাছে কিছু উপদেশ প্রার্থনা করেছিলেন। নরসিমা রাও বলেছিলেন, জীবনের সব সমস্যাতেই হুমড়ি খেয়ে পড়বে না। মাথা নিচু করে থাকলে কিছু সমস্যা আপনা থেকেই ওপর দিয়ে চলে যায়। কী বাস্তব একটা কথা দেখুন! আপনিও এটি আপনার জীবনে প্রয়োগ করতে পারেন। সপ্তাহ শুভ।

সিংহ ২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট। ভর # ১

জ্যোতিষী কল্লোল দাস আমার দীর্ঘ পরিচিত হলেও সাম্প্রতিক সময়ে তিনি অনুগ্রহ করে আমার সহযোগী হয়েছেন। এই রাশিফলগুলোর অনুলিখন তিনিই করছেন। তাঁর কাজে আমি মহা সন্তুষ্ট। মন্ত্রী ছাড়া রাজা তাঁর রাজত্ব চালাতে পারেন না। আমিও না। আপনাকেও বলি, উপযুক্ত একজন সহযোগী খুঁজে নিন। আপনার কাজের মান উন্নত হবে। সপ্তাহ যে ভালো কাটবে আপনার, এতে কোনো সন্দেহ নেই।

কন্যা ২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর। ভর # ২

এক এক রাতে গভীর একটা ঘুম থেকে উঠে অকারণেই মনটা কেমন আনন্দে ভরে ওঠে—সেটা খেয়াল করেছেন? পৃথিবীটা যেন আনন্দের বন্যায় ভেসে যায়। বড় সুন্দর মনে হয় এই জীবনটা। আসুন, আমরা আনন্দকে খুঁজে নিই। সপ্তাহ খুবই চমৎকার যাবে আপনার।

তুলা ২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর। ভর # ২

আমি দেখেছি, তুলা রাশির নারী-পুরুষেরা তর্কে অসাধারণ দক্ষ হন। উদাহরণস্বরূপ তুলা নবনীতা চৌধুরীর কথা আমরা স্মরণ করতে পারি। ঝগড়া ও তর্ক এক নয়। তাই খেয়াল রাখবেন যেন তর্কটা কখনো ঝগড়ার আকার ধারণ না করে। শুভ, সুন্দর হোক আপনার চলতি সপ্তাহটি।

বৃশ্চিক ২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর। ভর # ২

আমি যখন খুবই ছোট, আমার বড় দুই বোন সিলেট মুসলিম সাহিত্য সংসদ মিলনায়তনে জংলি নাচ নাচতেন…লে ভাই লে, লা তোর জানে, সাঙ্গালিপ্পা হাই মারো ইত্যাদি। সিলেটের তখনকার সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডল ছিল খুবই অবারিত। এখন কেমন জানি না। জানি না আমার বোনেরা এই লেখাটা পড়ছেন কি না। তাঁরা দেশের বাইরে থাকেন। প্রিয় বৃশ্চিক, নিজের সৃজনশীলতাকে ধরে রাখুন।

ধনু ২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর। ভর # ৯

চলচ্চিত্রের কয়েকটি যুগকে সঙ্গে করে নিয়ে চলে গেলেন ধনু রাশির দিলীপ কুমার। বাংলা চলচ্চিত্রের মহানায়ক উত্তমকুমার দিলীপকে ডাকতেন ইউসুফদা বলে। এমনিতেও আমরা দিলীপ কুমারের বাঙালিপ্রীতির বহু নিদর্শন জানি। তিনি ছিলেন ভারতীয় চলচ্চিত্রের এক সম্রাট। দ্বিতীয় দিলীপ কুমার আর হবেন না। প্রিয় ধনু, দিলীপের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য পরীক্ষা করলে আপনি নিজের সঙ্গে হয়তো তাঁর অনেক মিল খুঁজে পাবেন।

মকর ২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি। ভর # ৩

প্রতীকের বয়স তখন ৪ হতে পারে। আমরা থাকি আজিমপুর কলোনিতে। ওর বাইরে আসা একেবারেই নিষিদ্ধ। একদিন কলোনির বাইরের গেটে ওকে দেখতে পেয়ে আমি চমকে উঠলাম—একি প্রতীক, তুমি এখানে? চেয়ে দেখি ওর হাতের মুঠোয় একটা কয়েন। জিজ্ঞেস করতেই কান্না ছল ছল চোখে বলল, পেশাব করতে যাচ্ছি। অর্থাৎ কলোনির বাইরে তখন নতুন গণশৌচাগার হয়েছে। আমি বললাম, বাবা বাসায় বাথরুম থাকতে তুমি এখানে কেন এসেছ? প্রিয় মকর, অনেক শিশুই আছে এ রকম চিন্তাশীল। আপনি ছেলেবেলায় কেমন ছিলেন আমি জানি না। স্মৃতির পকেট হাতড়ালে কিছু না কিছু মজার জিনিস তো অবশ্যই খুঁজে পাবেন। সপ্তাহ কাটুক স্মৃতির আনন্দে।

কুম্ভ ২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি। ভর # ৯

ইংরেজিতে আমরা বলি ন্যাগিং। বাংলায় ঘ্যানঘ্যান করা। বিশেষ করে স্বামী–স্ত্রীর মধ্যে ন্যাগিং থাকলে সেটা একটা ভয়ংকর ব্যাপার। এ থেকে শেষ পর্যন্ত বিচ্ছেদও হয়ে যেতে দেখেছি। আপনার মধ্যে অভ্যাসটি থেকে থাকলে সচেতন হয়ে উঠুন। সপ্তাহ সুন্দর হোক।

মীন ১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ। ভর # ৩

অতীতকে মনে রাখা আর অতীতের মধ্যে বাস করা এক নয়। আপনি বলুন, যা গেছে তা যাক। বর্তমানের মধ্যে বাস করে আপনি ভবিষ্যতের দিকে চলুন। জীবন হবে উন্নত, সুন্দর ও কল্যাণময়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close