গাজীপুর

পৌর নির্বাচন: ১৭ কেন্দ্রের মধ্যে ১০টিই ‘অধিক ঝুঁকিপূর্ণ’, পুলিশ, র‌্যাব এবং ৫ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) আগামীকাল রোববার কালীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন ঘিরে উৎসবমুখর পরিবেশ রিবাজ করছে কালীগঞ্জে।

পৌরসভার মোট ১৭টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ১০টি কেন্দ্রকে ‘অধিক ঝুঁকিপূর্ণ’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে পুলিশ প্রশাসন।

ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তা দিতে প্রায় সাড়ে ৩’শ পুলিশ সদস্যের সঙ্গে আরও ১৪৬ জন আনসার ভিডিপি সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন। মাঠে থাকবে ৫ প্ল্যাটুন বিজিবি এবং র‌্যাবের ৭৫ জন সদস্য। এছাড়াও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এবং ১১ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নির্বাচনী এলাকায় দায়িত্ব পালন করবেন।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১৫.২০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের কালীগঞ্জ পৌরসভায় ১৭টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে। এসব কেন্দ্রে ভোটার রয়েছেন ৩৬ হাজার ৬৪০ জন। এদের মধ্যে এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৮ হাজার ৩২১ জন ও নারী ভোটার ১৮ হাজার ৩১৯ জন। এবার ইভিএমের মাধ্যমে ভোট প্রদান করবেন ভোটাররা।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ”১৭টি কেন্দ্রের মধ্যে ১০টি ভোটকেন্দ্রে সহিংসতার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ জন্য এই ১০টি কেন্দ্রকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ বা গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন। তবে এসব কেন্দ্রে নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তাব্যবস্থা।”

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আসন্ন কালীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রার্থীর সঙ্গে স্বতন্ত্র প্রার্থীর লড়াই হবে। এবারের পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কালীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এস. এম রবীন হোসেন (নৌকা), বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) মনোনীত প্রার্থী ফরিদ আহমেদ মৃধা (ধানের শীষ), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী মো. চাঁন মিয়া (হাত পাখা) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান মেয়র মো. লুৎফুর রহমান (নারিকেল গাছ)।

ছাড়াও ৩টি সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ১০ জন ও ৯টি সাধারণ ওয়ার্ডে ৩৩ জন কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ১ নং ওয়ার্ডে দুর্বাটি এম.ইউ কামিল মাদ্রাসার ফ্যাসিলিটিস ভবনে পুরুষ ভোটকেন্দ্র এবং একাডেমিক ভবনের নারী ভোটকেন্দ্র অধিক ঝুঁকিপূর্ণ।

২ নং ওয়ার্ডে সরকারী কালীগঞ্জ শ্রমিক কলেজর পুরুষ ও নারী ভোটকেন্দ্র সাধারণ।

৩ নং ওয়ার্ডে মসলিন কটন মিলস উচ্চ বিদ্যালয়ের পাকা ভবনের পুরুষ ভোটকেন্দ্র এবং টিনসেড ভবনের নারী ভোটকেন্দ্র সাধারণ।

৪ নং ওয়ার্ডে কালীগঞ্জ আরআরএন পাইলট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন ভবনে পুরুষ ভোটকেন্দ্র এবং পুরাতন ভবনের নারী ভোটকেন্দ্র সাধারণ।

৫ নং ওয়ার্ডে বালীগাঁও মডেল সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয়ে পুরুষ ভোটকেন্দ্র এবং বালীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ভোটকেন্দ্র অধিক ঝুঁকিপূর্ণ।

৬ নং ওয়ার্ডে চৌড়া নয়াবাড়ী সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন পুরুষ ভোটকেন্দ্র এবং পুরাতন ভবনের নারী ভোটকেন্দ্র অধিক ঝুঁকিপূর্ণ।

৭ নং ওয়ার্ডে উত্তরগাঁও সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন পুরুষ ভোটকেন্দ্র এবং পুরাতন ভবনের নারী ভোটকেন্দ্র অধিক ঝুঁকিপূর্ণ।

৮ নং ওয়ার্ডে মূলগাঁও সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের নারী ভোটকেন্দ্র এবং পুরাতন ভবনের পুরুষ ভোটকেন্দ্র সাধারণ।

৯ নং ওয়ার্ডে মূলগাঁও ২ নং সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয়ে পুরুষ ও নারী ভোটকেন্দ্র অধিক ঝুঁকিপূর্ণ এবং দেওপাড়া মেহের আফরোজ চুমকি সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয়ের পুরুষ ও নারী ভোটকেন্দ্র অধিক ঝুঁকিপূর্ণ।

জেলা পুলিশ ও কালীগঞ্জ থানা সূত্রে জানা গেছে, ”শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন করার লক্ষ্যে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রগুলোয় তিন স্তরের নিরাপত্তা থাকবে। গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রসহ সকল কেন্দ্রে বাড়তি নিরাপত্তা হিসেবে একজন পুলিশ পরিদর্শক, একজন করে এসআই এবং চারজন কনস্টেবল দায়িত্ব পালন করবেন।”

”এছাড়াও প্রতি কেন্দ্রে একজন করে এসআই, একজন করে এএসআই এবং চারজন করে কনস্টেবল মোতায়েন থাকবে। সেই সঙ্গে প্রতিটি কেন্দ্রে ৫জন করে পুরুষ ও ৩জন করে নারী আনসার-ভিডিপি সদস্য মোতায়েন থাকবেন। এ ছাড়া ১৭টি ওয়ার্ডে একটি করে পুলিশের মোবাইল টিম দায়িত্ব পালন করবে। সঙ্গে স্ট্রাইকিং ফোর্স থাকবে ৩টি। স্ট্যান্ডবাই থাকবে পুলিশের ১৩ সদস্যের আরও একটি টিম। এছাড়া ৬ টি চেকপোস্টে পুলিশ মোতায়েন থাকবে। সব মিলিয়ে নির্বাচনী এলাকায় ৩৫১ জন পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন।”

নির্বাচন কমিশন সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, ”কালীগঞ্জ পৌর নির্বাচনে গাজীপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো: ইলিয়াস রহমান নির্বাচনী এলাকায় দায়িত্ব পালন করবেন।”

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শিবলী সাদিক বলেন, ”নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ এবং শান্তিপূর্ণ ভাবে সম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে নির্বাচনী আচরণবিধি প্রতিপালন নিশ্চিতকরণ এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষা ও অপরাধ প্রতিরোধের জন্য ‘মোবাইল কোর্ট আইন ২০০৯’ এর প্রাসঙ্গিক আইনের আওতায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার জন্য গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের সমন্বয়ে ১১ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নির্বাচনী এলাকায় দায়িত্ব পালন করবেন। পাশাপাশি ৫ প্লাটুন বিজিবি (মোট ১০০ সদস্য), ৭৫ জন র‌্যাব সদস্য, পুলিশ এবং আনসারের ৪৯৭ জন সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।”

 

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, নির্বাচনে ১৭টি ভোট কেন্দ্রে ১২০টি বুথে ভোট গ্রহণ করা হবে।

 

আরো জানতে…

‘তথ্য গোপন’ করেছে হত্যা মামলার আসামি পরিমল, অন্য পাঁচজন বিভিন্ন পেশার

কালীগঞ্জে নির্বাচনী এলাকায় ১১ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ এবং ২ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

কালীগঞ্জ পৌর নির্বাচন: শুক্রবার মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে প্রচারণা

কেন্দ্র দখলের আশঙ্কা: ”সিসি ক্যামেরা স্থাপন ও বহিরাগতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা” নেয়ার দাবী

পৌর নির্বাচন: অর্থ-সম্পদ নেই, তবু ‘তথ্য গোপন’ রিপনের: শান্তা, জামান ও নাইম ব্যবসায়ী

কালীগঞ্জ পৌর নির্বাচন: অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হোক

কালীগঞ্জ পৌর নির্বাচন: মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ

কালীগঞ্জ পৌর নির্বাচনে লড়াই হবে ত্রিমুখ

পৌর নির্বাচন: আতাব উদ্দীনের ‘ঋণ’ কোটি টাকা, বাদল এগিয়ে শিক্ষায়, আকরাম ব্যবসায়ী

পৌর নির্বাচন: শিক্ষা ও অর্থ-সম্পদে এগিয়ে আফসার, ‘তথ্য গোপন’ রয়েছে চান্দু মোল্লার!

পৌর নির্বাচন: হাসেম ভূইয়া এগিয়ে অর্থ-সম্পদে, মোমেন মামলায়, আরমান ‘অক্ষরজ্ঞান সম্পূর্ণ’

কালীগঞ্জ পৌর নির্বাচন: শিক্ষা ও অর্থে এগিয়ে স্বতন্ত্র, ব্যবসায়ী আ.লীগ, মামলায় এগিয়ে বিএনপি প্রার্থী

কালীগঞ্জে ৪ মেয়র প্রার্থীসহ ৪৯ জনের মনোনয়ন দাখিল

খসড়া তালিকা অনুযায়ী কালীগঞ্জ পৌরসভার মোট ভোটার ৩৯ হাজার ৮৩৫ জন, ভোট কেন্দ্র ১৭ টি

কালীগঞ্জ পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন এস এম রবীন হোসেন

কালীগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন ২৮ ফেব্রুয়ারি: ভোট ইভিএমে, থাকবে না সাধারণ ছুটি

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close