আন্তর্জাতিকআলোচিত

দিল্লিতে ইসরাইলি দূতাবাসের কাছে বিস্ফোরণ, সতর্কতা জারি

গাজীপুর কণ্ঠ, আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের রাজধানী দিল্লিতে ইসরাইলি দূতাবাসের কাছে কম তীব্রতা সম্পন্ন আইইডি বিস্ফোরণে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। 

শুক্রবার (৩০ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ওই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ইহুদিবাদী ইসরাইলের উদ্বেগ দূর করতে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে ব্যাপক তৎপরতা শুরু হয়েছে।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ইসরাইলের পররাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গে ওই বিষয়ে কথা বলেছেন। পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা ইসরাইলি পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে কথা বলেছেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব নয়াদিল্লিস্থ ইসরাইলি রাষ্ট্রদূতকে ফোন করে পূর্ণ তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন। ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল ইসরাইলের এনএসএ’র সঙ্গে কথা বলে বিস্তারিত জানিয়েছেন।

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ওই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। দিল্লির শান্তি নষ্ট করার যেকোনো প্রয়াস কঠোরভাবে মোকাবিলা করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

বিস্ফোরণস্থল বিজয় চক থেকে দেড় কিলোমিটার দূরে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে বিটিং রিট্রিট অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, উপ-রাষ্ট্রপতি এবং সরকারের বেশ কয়েকজন সিনিয়র কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। ডিসিপি সেন্ট্রাল সিঙ্ঘলের মতে, এটি একটি সামান্য বিস্ফোরণ এবং এতে কেউ আহত হয়নি। বিস্ফোরণের ফলে কয়েকটি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স (সিআইএসএফ) জানিয়েছে, ইসরাইলি দূতাবাসের কাছে বোমা বিস্ফোরণের পরিপ্রেক্ষিতে সমস্ত বিমানবন্দর, বড় বড় প্রতিষ্ঠান এবং সরকারি ভবনের জন্য সতর্কতা জারি করা হয়েছে এবং নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

গণমাধ্যম সূত্রে প্রকাশ, বিস্ফোরকটি ‘আইইডি’ বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। সেটিকে মেঝেতে একটি প্লাস্টিকের ব্যাগে জড়িয়ে রাখা হয়েছিল যেখানে তার পাশে পার্কিং করা চার/পাঁচটি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, ‘আইইডি’তে বল বিয়ারিং ব্যবহার করা হয়েছিল।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৫টা ১১ মিনিট নাগাদ ফায়ারব্রিগেড এপিজে আবদুল কালাম রোডে বিস্ফোরণের খবর পাওয়া মাত্র ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। সংশ্লিষ্ট এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে এবং এলাকাটি ঘিরে রাখা হয়েছে। প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারিতে এক বিস্ফোরণে নয়াদিল্লিতে ইহুদিবাদী ইসরাইলি রাষ্ট্রদূতের গাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ দিল্লির পুলিশ কমিশনার এবং গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর প্রধানের সাথে দেশের রাজধানীতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যালোচনা করার মাত্র কয়েক দিনের মধ্যেই এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল। দেশে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে এই বিস্ফোরণ শীর্ষ কর্মকর্তাদের উদ্বেগকে বাড়িয়ে তুলেছে। গোয়েন্দা এজেন্সিগুলো ওই বিস্ফোরণের তদন্ত করছে।

এদিকে, ‘আজতক’ টিভি চ্যালনেলের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে ইসরাইলি দূতাবাসের কাছে বোমা বিস্ফোরণের পরে উত্তর প্রদেশের অযোধ্যাসহ গোটা উত্তর প্রদেশে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। রাজ্যের সমস্ত জেলাগুলোকে উচ্চ সতর্কতায় রাখা হয়েছে। অযোধ্যায় বিশেষভাবে নজর দেওয়া হচ্ছে। এরআগে মুম্বাইতেও নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close