আলোচিতশিক্ষা

সনদ ছাড়াই ভর্তি নিচ্ছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়

গাজীপুর কণ্ঠ, শিক্ষা ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতির কারণে এ বছর পরীক্ষা ছাড়াই সব শিক্ষার্থীকে উচ্চ মাধ্যমিকে পাস করানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এসএসসি ও জেএসসির ফলাফলের ভিত্তিতে চলছে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন কার্যক্রম। এখনো ফল প্রকাশের তারিখ ঘোষণা হয়নি, তবে ডিসেম্বরের শেষের দিকে প্রকাশের প্রস্তুতি চলছে। তার আগেই এইচএসসির ফলপ্রত্যাশী শিক্ষার্থীদের স্নাতক শ্রেণীতে ভর্তি করিয়ে নিচ্ছে বেশকিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। এমনকি ক্লাসে অংশগ্রহণের সুযোগও দিচ্ছে কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়।

এইচএসসির সনদ হাতে পাওয়ার আগে শিক্ষার্থীদের স্নাতকে ভর্তি কিংবা ক্লাসে অংশ নেয়ার সুযোগ দেয়াটা বিধির লঙ্ঘন বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি)। উচ্চশিক্ষা তদারককারী প্রতিষ্ঠানটির মতে, স্নাতক শ্রেণীতে ভর্তির অন্যতম শর্তই হলো এইচএসসি বা সমমানের ডিগ্রি থাকতে হবে। তার আগে ভর্তি হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

সনদ ছাড়া ভর্তি নিয়মের ব্যত্যয় বলে মনে করেন শিক্ষা মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্টরাও। মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট শাখার একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এইচএসসি পাসের সনদ দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হবে এটাই নিয়ম। কোনো বিশ্ববিদ্যালয় এটি না মানলে, সেখানে নিয়মের ব্যত্যয় ঘটছে। এসএসসি পাসের সনদ দিয়ে স্নাতকে ভর্তির কোনো সুযোগ নেই। তারা কিসের ভিত্তিতে শিক্ষার্থী ভর্তি করাচ্ছে, এটি যাচাই করে দেখতে হবে।

তবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বলছে, সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী এ বছর সব শিক্ষার্থীই পাস করবে, তাই ভর্তিতে কোনো বাধা নেই।

সাধারণত এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল ঘোষণার পর শিক্ষার্থী ভর্তি শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তির যোগ্যতা নিয়ম নির্ধারণ করে দিয়ে গত বছর একটি কার্যালয় স্মারক জারি করেছিল ইউজিসি। ওই স্মারক অনুযায়ী, স্নাতক শ্রেণীতে ভর্তির ক্ষেত্রে একজন ভর্তিচ্ছুকে অবশ্যই এসএসসি ও এইচএসসি কিংবা সমমানের পরীক্ষায় ন্যূনতম দ্বিতীয় বিভাগ কিংবা ২ দশমিক ৫ গ্রেড থাকতে হবে। সে হিসাবে ভর্তির ক্ষেত্রে একজন শিক্ষার্থীকে অবশ্যই এইচএসসি পরীক্ষায় পাস করা বাধ্যতামূলক। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ এ শর্ত মানছে না বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো।

এ প্রসঙ্গে ইউজিসির সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ড. ফেরদৌস জামান বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১০ ও ভর্তির যোগ্যতাবিষয়ক জারীকৃত বিধিবিধান—কোনোটিতেই এইচএসসি পাসের আগে স্নাতক শ্রেণীতে শিক্ষার্থী ভর্তির কোনো সুযোগ রাখা হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এখন কিসের ভিত্তিতে ভর্তি নিচ্ছে সেটি বোধগম্য নয়। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখব। শুধু শিক্ষার্থী ভর্তি নয়, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আইনের যেকোনো ধরনের ব্যত্যয় ঘটলে সেটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এইচএসসি পাস করার আগে শিক্ষার্থী ভর্তি করানো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তালিকায় রয়েছে রাজধানীর ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ভর্তির বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানান, এইচএসসি পাস করার আগেই জেএসসি ও এসএসসির সনদ দিয়েই ভর্তি হওয়া যাবে। বিশ্ববিদ্যালয়টির ভর্তি কর্মকর্তা এমএ হান্নান বলেন, ফল প্রকাশের আগেই ভর্তি হতে পারবেন। আপনি চাইলে কালই ভর্তি করানো হবে। এ সময় এইচএসসির ফল প্রকাশ না হওয়ার বিষয়টির কথা বললে এতে কোনো সমস্যা নেই বলেও জানান তিনি।

শুধু ভর্তি নয়, ক্লাসে অংশ নেয়ার সুযোগও দিচ্ছে কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। এমন বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে রয়েছে দি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব স্কলারস। ভর্তির বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রশাসনিক কর্মকর্তা জহিরুল এইচএসসি পাসের আগেই ভর্তির পাশাপাশি ক্লাসে অংশগ্রহণের সুযোগের কথাও জানান। তিনি বলেন, আমাদের এখানে

এসএসসি ও জেএসসির সার্টিফিকেট দিয়েই ভর্তি হতে পারবেন। ক্লাস কবে থেকে শুরু হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কয়েকটি প্রোগ্রামের ক্লাস শুরু হয়েছে, ওই ব্যাচগুলোর সঙ্গে ক্লাস শুরু করা যাবে।

এইচএসসি পাসের আগে এ ধরনের ভর্তিতে জালিয়াতির আশঙ্কা করছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসির কর্মকর্তারা। তারা বলছেন, সনদ ছাড়া শিক্ষার্থী ভর্তি করানোর ফলে ভুয়া শিক্ষার্থী ভর্তির ঝুঁকি রয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ইউজিসির একজন কর্মকর্তা এ প্রসঙ্গে বলেন, ধরুন একজন শিক্ষার্থী ২০১৬ সালে জেএসসি ও ২০১৮ সালে এসএসসি পাসের পর কলেজে ভর্তি হয়নি। এখন এইচএসসি ফলের অপেক্ষমাণ দাবি করে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে রেজিস্ট্রেশন করে ফেলল। এভাবে উচ্চ মাধ্যমিকে না পড়েও স্নাতকে ভর্তি হওয়ার সুযোগ নিতে পারে অনেক শিক্ষার্থী।

তবে এইচএসসি ফলপ্রত্যাশীদের শর্তসাপেক্ষে ভর্তির সুযোগ থাকা উচিত বলে মনে করেন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির (এপিইউবি) সভাপতি শেখ কবির হোসেন। তিনি বলেন, আসলে করোনার কারণে গত দুই সেমিস্টারে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তিতে ধস নেমেছে। এখন দু-একটি ছাড়া সব বিশ্ববিদ্যালয়েই শিক্ষার্থী সংকট। শিক্ষার্থী সংকট মানে আর্থিক সংকট। তাই সবাই এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের দিকে তাকিয়ে ছিল। এখন সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী যেহেতু সব শিক্ষার্থীই পাস করবে, তাই এসব ফলপ্রত্যাশী শিক্ষার্থীকে প্রভিশনাল ভর্তির সুযোগ দেয়া উচিত বলে মনে করি। এক্ষেত্রে ইউজিসির পক্ষ থেকেও নির্দেশনা দেয়া প্রয়োজন।

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে ইউজিসির সদস্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ চন্দ বলেন, এসএসসি পাসের সার্টিফিকেট দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির বিষয়টি আইনের দিক থেকেও বৈধ নয়। এমনকি নৈতিক দিক থেকেও এটি সঠিক নয়। যেহেতু এ বিষয়ে অভিযোগ উঠেছে, সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

সূত্র: বণিক বার্তা

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close