গাজীপুরজাতীয়

শহীদ ময়েজউদ্দিন সব সময় অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন : আ ক ম মোজাম্মেল

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, ঐতিহাসিক আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা পরিচালনা কমিটির আহবায়ক স্বাধীনতা পুরস্কার পাওয়া শহীদ মোহাম্মদ ময়েজউদ্দিন সব সময় অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন।

তিনি বলেন মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম এ সংগঠক ঐতিসাহিক আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা পরিচালনা করার জন্য গঠিত ‘মুজিব তহবিলের’ আহবায়ক ছিলেন। একজন বিচক্ষণ আইনজীবী ও রাজনীতিক হিসেবে অত্যন্ত সাহসিকতার সাথে তিনি ঐতিহাসিক দায়িত্ব পালন করেন।

শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি মিলনায়তনে শহীদ ময়েজউদ্দিনের ৩৬ম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে “সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ গঠনে শান্তি ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় জনপ্রতিনিধি ও পেশাজীবীদের ভূমিকা” শীর্ষক এক আলোচনা ও স্মরণ সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।

মোজাম্মেল হক বলেন, ছয় দফা আন্দোলন থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধের বিজয় পর্যন্ত তিনি এক অনবদ্য ভূমিকা পালন করেন। রাজনৈতিক জীবনে লোভ, সুবিধাবাদিতা ও কাপুরুষতা তাকে কখনো স্পর্শ করেনি। গণমানুষের স্বার্থকে তিনি সবসময়ে মর্যাদা দিয়েছেন।

gazipurkontho

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও পররাষ্ট্র বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি কর্নেল (অব:) ফারুক খান এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফারুক খান এমপি বলেন, রাজনীতিতে কিছু অনৈতিক লোকের প্রবেশের কারণে রাজনীতি আজ কুলষিত ও কলংকিত হচ্ছে। শহীদ ময়েজউদ্দিনের মতো আদর্শবান রাজনৈতিক নেতার বড় প্রয়োজন। তিনি বলেন, শহীদ ময়েজউদ্দিন ও শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টারের আদর্শ তরুণ প্রজন্মকে উজ্জীবীত করবে। তাদের নিয়ে গবেষণা করা প্রয়োজন।

আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও ময়েজউদ্দিন স্মৃতি সংসদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক মেহের আফরোজ চুমকী এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন গাজীপুর সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান। আলোচনায় অংশ নেন তাঁতী লীগের সাধারণ সম্পাদক খগেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ, গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম, পেশাজীবী নেতা আব্দুল মালেক সরকার, মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন, নুরুল আমিন সিকদার প্রমুখ।

সেনা শাসক এরশাদ বিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে মোহাম্মদ ময়েজউদ্দিন ১৯৮৪ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কালীগঞ্জে শহীদ হন।

 

সূত্র: বাসস

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close