গাজীপুর

সালনায় ৯ মাসে ৬০ একর বনভূমি উদ্ধার

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : ঢাকা বন বিভাগের অধীন গাজীপুর সালনা বিটে গত নয় মাসে ৬০ একর বনভূমি জবরদখল থেকে উদ্ধার হয়েছে। তবে সালনা বিটে ভূমি সংক্রান্ত জটিলতা, কোর্ট অব ওয়ার্ডসের লিজকাণ্ডে বেহাত বন উদ্ধারে বিলম্ব হচ্ছে। গাজীপুর রাজেন্দ্রপুর রেঞ্জের সালনা বিট কাম চেক স্টেশনে বনভূমি উদ্ধারের পাশাপাশি চোরাই কাঠসহ ট্রাক আটকে মিলেছে সাফল্য।

জানা গেছে, সালনা বিটে বনভূমির পরিমাণ ২১১৬.১৬ একর। তবে আরএস রেকর্ডভুক্ত হয়েছে ১৭০০.১৬ একর। সৃষ্ট ভূমি সংক্রান্ত জটিলতার সুযোগে সক্রিয় একাধিক বনখেকো চক্র। তবে সালনা বিট কর্মকর্তার কৌশলী বিভিন্ন কার্যক্রমে বনের জমি প্লট আকারে বিক্রির পাঁয়তারা বন্ধ হয়েছে।

সালনা বিট কাম চেক স্টেশন অফিসার ফরেস্টার আবদুল মান্নান জানান, গাজীপুর মৌজার ৪৫৯, ১৬৩ ও ১৭১ সিএস দাগে ৩০ একর বেহাত বনভূমি উদ্ধার করে বাগান সৃজন করা হয়েছে। ১৯নং হাতিয়াব মৌজার ৪১৪, ৪০৪, ৩৭৬, ৩৭১, ৩০৫ নম্বর সিএস দাগসহ আরও সাতটি দাগে ২৭.৫০ একর বনভূমি উদ্ধার হয়েছে।

অনুন্নয়ন খাতে বাগান সৃজিত হয়েছে ২৫ একর। ২০১৯-২০ অর্থবছরে সুফল প্রকল্পের লক্ষ্যমাত্রা অনুসারে ৭৫ একরে বাগান সৃজিত হয়েছে। তিনি আরও বলেন, গত নয় মাসে সালনা বিটে সংগঠিত বিভিন্ন বন অপরাধে গাজীপুর বন আদালতে ১৭টি পিওআর মামলা দায়ের হয়েছে। চোরাই কাঠসহ ট্রাক আটক হয়েছে তিনটি।

চোরাই কাঠ পাচারকালে হাতেনাতে আটক হয়েছে তিনজন। জব্দকৃত বিভিন্ন জাতের কাঠ ও গজারী বল্লীর বাজার মূল্য ৬ লাখ টাকার বেশি। এ ছাড়া বনের ভেতর দিয়ে অবৈধভাবে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন নির্মাণের সময় বিদ্যুতের খুঁটি ও লক্ষাধিক টাকার সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে বিভিন্ন সাইজের করাত, কুরাল, ঢেউটিনসহ গৃহ নির্মাণসামগ্রী।

ঢাকা বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মোহাম্মদ ইউসুফ জানান, সালনা বিটে লিজকা-ে বনভূমির অপুরণীয় ক্ষতি হচ্ছে। এ ছাড়া গাজীপুরে বনভূমি রক্ষায় উচ্ছেদ মোকদ্দমা এবং রেকর্ড সংশোধনী মোকদ্দমাগুলোর দ্রুত নিষ্পত্তি হওয়া জরুরি বলে তিনি মনে করছেন।

 

সূত্র: খোলা কাগজ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close