গাজীপুর

লাল এলাকা: কালীগঞ্জে মৃত নারী কোভিড-১৯ শনাক্ত, স্বাভাবিক নিয়মে সৎকার!

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসেবে ‘লাল এলাকা’ ঘোষিত কালীগঞ্জ পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত নারী কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। গত ১ জুলাই সকাল ৮ টার দিকে তিনি নিজ বাড়িতে জ্বর, ঠান্ডা ও শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান। ওই দিন বিকেলে তাঁর লাশ স্বাভাবিক নিয়মে কালীগঞ্জ পৌর কেন্দ্রীয় শ্মশানঘাটে দাহ করা হয়।

শুক্রবার (৩ জুলাই) জানা যায় তিনি কোভিড-১৯ পজেটিভ ছিলেন। এর ফলে তাঁর সংস্পর্শে থাকা ও সৎকারে অংশ নেওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করছে এলাকাবাসী।

‘লাল এলাকা’ ঘোষিত কালীগঞ্জ পৌরসভায় এটি তৃতীয় রোগীর মৃত্যুর ঘটনা।

কোভিড-১৯ শনাক্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ ছাদেকুর রহমান আকন্দ।

মৃত নারী পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের মুনশুরপুর (গার্লস স্কুল সংলগ্ন) গ্রামের বাসিন্দা মৃত সচিন্দ্র শীলের স্ত্রী মিনা রানী শীল(৭০)।

‘লাল এলাকা’ ঘোষিত কালীগঞ্জ পৌরসভায় এটি তৃতীয় রোগীর মৃত্যুর ঘটনা। এর আগে কালীগঞ্জ পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডে ৩০ জুন বেলা ১১ টার দিকে ‘হোম আইসোলেশনে’ চিকিৎসাধীন অবস্থায় কোভিড-১৯ শনাক্ত এক ব্যক্তি (৫৮) মারা গেছেন। ওই ব্যক্তি কালীগঞ্জ পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের মুনশুরপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ইলেকট্রিক সরঞ্জাম মেরামত করতেন।

এর আগে ৪ নং ওয়ার্ডের একই গ্রামের আরেক বাসিন্দা (৮০) কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়ে গত ২৭ জুন কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা গেছেন।

স্থানীয় ও মৃত নারীর পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ‘মিনা রানী শীল দীর্ঘদিন ধরে উচ্চ রক্তচাপ ও করোনা উপসর্গসহ বিভিন্ন রোগে ভোগছিলেন। গত ১ জুলাই সকাল ৮ টার দিকে তিনি নিজ বাসায় জ্বর, ঠান্ডা ও শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান। পরে তিনি করোনায় আক্রান্ত কিনা জানার জন্য নমুনা সংগ্রহ দেওয়া হয়েছিল। ওই দিন বিকেলে তাঁর লাশ স্বাভাবিক নিয়মে কালীগঞ্জ পৌর কেন্দ্রীয় শ্মশানঘাটে দাহ করা হয়। ২ দিন পর শুক্রবার তাঁর কোভিড-১৯ পরীক্ষায় রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে বলে হাসপাতাল থেকে জানানো হয়েছে’।

স্থানীয়রা আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, ’মারা যাওয়ার আগে মিনা রানী শীল পরিবারের সদস্যদের সংস্পর্শে ছিলেন। তিনি মারা যাওয়ার আগে ও পরে তাঁর পরিবারের সদস্যরা এলাকার অনেকের সংস্পর্শে আসেন। ওই নারী কালীগঞ্জ পৌর কেন্দ্রীয় শ্মশানঘাটে স্বাভাবিক মৃত্যুর ন্যায় দাহ করা হয়েছে। এর ফলে সংস্পর্শে ও সৎকারে অংশ নেওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে কোভিড-১৯- এর সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে’।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাদেকুর রহমান আকন্দ বলেন, ‘গত ১ জুলাই সকাল ৮ টার দিকে ওই নারী নিজ বাসায় জ্বর, ঠান্ডা ও শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান। পরে তাঁর নমুনা সংগ্রহ করা হয়। শুক্রবার (৩ জুলাই) রিপোর্ট আসলে জানা যায় তিনি কোভিড-১৯ পজেটিভ ছিলেন। তাঁর পরিবারের সদস্যেদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। লাল এলাকা ঘোষিত কালীগঞ্জ পৌরসভায় এটি তৃতীয় রোগীর মৃত্যুর ঘটনা’।

 

আরো জানতে….

রেড জোন: কালীগঞ্জে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়ে ‘হোম আইসোলেশনে’ রোগীর মৃত্যু

কোভিড-১৯: নেগেটিভ থেকে পজেটিভ হয়ে অবসরপ্রাপ্ত এক কর্মরতার মৃত্যু, দাফন করেছে কোয়ান্টাম

কোভিড-১৯: গাজীপুরেও লাশ দাফনে এগিয়ে এসেছে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন

কালীগঞ্জে ‘রেড জোন’ ঘোষিত অঞ্চলে কোভিড-১৯ শনাক্ত এক ব্যক্তির মৃত্যু

কোভিড-১৯ ‘পজেটিভ’ ছিলেন শিক্ষক, জানা গেল মৃত্যুর ২ সপ্তাহ পর, পিতাও মারা গেল আজ

কোভিড-১৯: আইসিইউতে চিকিৎসাধীন কালীগঞ্জের নারী নেত্রী আমেনা আক্তারের মৃত্যু

কালীগঞ্জে খ্রিস্টান বৃদ্ধের মৃত্যুর ৫ দিন পর জানা গেল কোভিড-১৯ পজেটিভ ছিলেন!

কোভিড-১৯: কালীগঞ্জে ব্যবসায়ীসহ দুই জনের মৃত্যু

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close