আন্তর্জাতিক

২৪ ঘণ্টায় ভারতে ১৫৭ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৫ হাজার ২৪২ জন

গাজীপুর কণ্ঠ, আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে তৃতীয় দফার লকডাউন শেষ হয়েছে রবিবার। সোমবার থেকে শুরু হয়েছে চতুর্থ দফার লকডাউন। এর মধ্যেই আশঙ্কা বাড়িয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যায় বৃদ্ধিতে ফের রেকর্ড হল ভারতে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া হিসেবে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ২৪২ জন। এ পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় এত সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হননি। একই সঙ্গে  ভারতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯৬ হাজারের গণ্ডি পেরিয়ে পৌঁছে গেল। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসেবে দেশে এই মুহূর্তে মোট কোভিড আক্রান্ত ৯৬ হাজার ১৬৯ জন। করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধিতে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মহারাষ্ট্র, দিল্লি, গুজরাত ও তামিলনাড়ু।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসেবে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ১৫৭ জনের। এই নিয়ে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল তিন হাজার ২৯ জন। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রেই মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ১৯৮ জনের। ৬৫৯ জন মারা গিয়েছেন গুজরাতে। মধ্যপ্রদেশে মৃতের সংখ্যা ২৪৮, পশ্চিমবঙ্গে ২৩৮। শতাধিক মৃত্যুর তালিকায় রয়েছে দিল্লি (১৬০), রাজস্থান (১৩১) ও উত্তরপ্রদেশ (১০৪)।

ভারতে প্রথম করোনা সংক্রমণের সন্ধান মিলেছিল কেরলে। তার কয়েক দিনের মধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যায় শীর্ষ উঠে গিয়েছিল মহারাষ্ট্র। তার পর থেকে মহারাষ্ট্রের চেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়নি অন্য কোনও রাজ্যে। এখনও সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত সেই মহারাষ্ট্রেই। সে রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩ হাজার ৫৩। যা সারা দেশের মোট আক্রান্তের তিন ভাগের এক ভাগ। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে গুজরাত। সে রাজ্যে মোট কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন ১১ হাজার ৩৭৯ জন। এর পরে রয়েছে তামিলনাড়ু। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ১১ হাজার ২২৪ জন। রাজধানী দিল্লিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ৫৪ জন। এর পর ক্রমান্বয়ে রয়েছে রাজস্থান (৫,২০২), মধ্যপ্রদেশ (৪,৯৭৭), উত্তরপ্রদেশ (৪,২৫৯), পশ্চিমবঙ্গ (২,৬৭৭), অন্ধ্রপ্রদেশ (২,৪০৭), পঞ্জাব (১,৯৬৪), তেলঙ্গানা (১,৫৫১), বিহার (১,২৬২), জম্মু-কাশ্মীর (১,১৮৩) ও কর্নাটকের (১,১৪৭) মতো রাজ্য।

পশ্চিমবঙ্গে এই মুহূর্তে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২,৬৭৭। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসেবে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১০১ জন। রাজ্যে মোট মৃত্যু হয়েছে ২৩৮ জনের। যদিও রাজ্য সরকারের হিসেবে করোনাভাইরাসের জেরে মৃতের সংখ্যা ১৬৬। বাকি ৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে কোমর্বিডিটির কারণে।

তবে করোনা আক্রান্ত রোগীদের সুস্থ হয়ে ওঠার হার বৃদ্ধিতে কিছুটা আশা জাগাচ্ছে। মোট আক্রান্তের মধ্যে ৩৬ হাজার ৮২৪ জন হাসপাতালে চিকিৎসার পর বাড়ি ফিরেছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন দু’হাজার ৭১৫ জন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close