আন্তর্জাতিক

মুশাররফের মৃত্যুদণ্ডের রায় বাতিল

গাজীপুর কণ্ঠ, আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশাররফের মৃত্যুদণ্ডের রায় বাতিল করেছে দেশটির উচ্চ আদালত। সেই সঙ্গে বিশেষ আদালতের দেয়া পূর্বের রায়কেও অসাংবিধানিক হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

গত মাসে পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশাররফের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছিল দেশটির বিশেষ ট্রাইব্যুনাল। এই রায় অসাংবিধানিক হিসেবে অভিহিত করে তা বাতিল করে দিয়েছে উচ্চ আদালত। সোমবার লাহোরের উচ্চ আদালতে এই রায় ঘোষণা করা হয়।

‘‘অভিযোগ দায়ের, কোর্টের সংবিধান, এবং তদন্ত দলের নিয়োগ প্রক্রিয়া সমস্তই অবৈধ৷ এবং শেষ পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ রায়কে খারিজ করে দেয়া হয়েছে,” বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন সরকার পক্ষের প্রসিকিউটর ইশতিয়াক এ খান। তবে তদন্তকারীরা ফেডারেল কেবিনেটের অনুমোদন সাপেক্ষে মুশাররফের বিরুদ্ধে নতুন করে অভিযোগ দায়ের করতে পারেন।

এর আগে রাষ্ট্রদ্রোহের অপরাধে দোষী সাব্যস্ত করে মুশাররফকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল দেশটির বিশেষ আদালত৷ ২০০৭ সালের নভেম্বরে অবৈধভাবে সংবিধান স্থগিত করে জরুরি অবস্থা জারি করায় তার বিরুদ্ধে এই মামলা হয়েছিল। তার বিরুদ্ধে দেয়া ১৬৭ পাতার ওই রায়ের বিস্তারিত বিবরণ প্রকাশের পর নতুন করে বিতর্ক শুরু হয়। কারণ, রায়ের এক অংশে অভিনব এক আদেশ দেয়া হয়েছে। বলা হয়, যদি মুশাররফকে জীবিত ধরা সম্ভব না হয় বা সাজা কার্যকরের আগেই তার মৃত্যু হয় সেক্ষেত্রে ‘‘মৃতদেহ রাজধানী ইসলামাবাদের ডি-চক-এ নিয়ে গিয়ে তিনদিন ঝুলিয়ে রাখা (উচিত) হবে৷” দেশটির পার্লামেন্টের বাইরেই ডি-চক এলাকা।

সেসময় সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা পোশোয়ার হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতিকে ‘মানসিকভাবে অক্ষম’ ঘোষণা করে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়ার আবেদন করবেন। পাকিস্তানের প্রভাবশালী সেনাবাহিনীও এ রায়ের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। সেনাবাহিনীর মুখপাত্র বলেন, ‘‘এই রায় সব ধরনের মানবতা, ধর্ম এবং সামাজিক মূল্যবোধের পরিপন্থি।”

মুশাররফ নিজেও দাবি করেন, তার বিরুদ্ধে এই রায় ‘ব্যক্তিগত আক্রোশ থেকে’ দেয়া হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close