গাজীপুর

তরুণদের স্বপ্ন পূরণের ইচ্ছাকে পুঁজি করে এমএমএল ব্যবসা: র‌্যাবের জালে ‘লাইফওয়ে’র ৩২ প্রতারক

গাজীপুর কণ্ঠ ডেস্ক : চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের অসহায় বেকার তরুণদের টঙ্গীতে নিয়ে আসে একটি চক্র। পরে তাদের দেওয়া হয় ‘মগজ ধোলাই’। বেকার তরুণদের স্বপ্ন পূরণের ইচ্ছাকে পুঁজি করে এমএমএল ব্যবসায়ীদের একটি চক্র হাতিয়ে নিচ্ছিল কোটি কোটি টাকা।

অবশেষে ভয়ঙ্কর এই প্রতারক চক্রের মূল হোতা নাছির হায়দার খান ও আলতাফ হোসেনসহ ৩২ সদস্যকে বৃহস্পতিবার দুপুরে টঙ্গীর মধুমিতা বাজার এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছেন র‌্যাব-১১ এর সদস্যরা। এ সময় ৭৩ জন ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাছির হায়দান খান (৫৫), পরিচালক আলতাফ হোসেন (৪৫), পরিচালক আবু নছর (৫০), মার্কেটিং অফিসার বাবুল হোসেন (৩১), ম্যানেজার লুৎফর রহমান (৪০), মার্কেটিং সেলিম রেজা (৩২), প্রশিক্ষক জালাল আহম্মদ (৪০), অফিস সহকারী শাহীন (২৪), সিরাজ (২৫), ডিস্ট্রিবিউটর সাজ্জাদ (২২), মামুন খন্দকার (৩৪), সাকিল (৩০), নাজমুল হক (২৪), পলাশ সরকার (২৪), মাসুদ রানা (২২), তালহা (২৪), ছাইদুর (২২), আব্দুর রহমান (২৪), জেভিয়ার জেংচাম (২৩), সাকিব (২৩), অ্যালবিন (২১), রহিম বাদশা (২১), বাপন (২৫), রুবেল হোসেন (২৭), শিপন রায় (৩২), আমিনুর রহমান (২৫), তাছলিম উদ্দিন (২৯), জাহিদুল ইসলাম (২২), শওকত হোসেন (২১), আরাফাত (২০), আনোয়ার হোসেন (২৪) ও নাজমুল হক (২৬)।

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে প্রতারক চক্রের সদস্যরা জানায়, প্রথমে প্রতিষ্ঠানের সদস্য হতে ৩টি ভিন্ন প্যাকেজে চাকরি প্রত্যাশীদের কাছ থেকে ৩০, ৪০ ও ৫০ হাজার টাকা নেয়। বলা হয়, বিক্রির জন্য দেওয়া হবে একটি টেলিভিশন বা ফ্রিজ। এরপর শুরু হয় তাদের প্রশিক্ষণ। প্রশিক্ষণের সময় তাদের সেখানো হয়, কিভাবে ভুলিয়ে প্রতিষ্ঠানের সদস্য সংগ্রহ করে কমিশন পাওয়া যায়। নতুন সদস্য দিতে না পারলে কৌশলের আশ্রয় নিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে খালি স্ট্যাম্প ও আপোসনামায় জোরপূর্বক স্বাক্ষর নিয়ে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। প্রতিবাদ করলে ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের দ্বারা আটকে রেখে শারীরিক নির্যাতনও করে থাকেন প্রতারক চক্রের সদস্যরা।

র‌্যাব-১১ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন বলেন, তারা একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক দলের সক্রিয় সদস্য। স্থানীয় প্রভাবশালীদের ম্যানেজ করে সুবিশাল জায়গা ভাড়া নিয়ে বছরের পর বছর তারা এ প্রতারণা করে আসছিল।

দীর্ঘদিন ধরে টঙ্গী-গাজীপুরসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় লাইফওয়ে বাংলাদেশ প্রাইভেট লিমিটেড নামে প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে যুবকদের চাকরি দেওয়ার নামে গোপন কক্ষে বন্দি রেখে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close
Close